advertisement
আপনি পড়ছেন

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের এক মাদরাসায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় শেখ রহিমুল্লাহ হাক্কানি নামে প্রভাবশালী এক ধর্মীয় নেতা নিহত হয়েছেন। ইসলামিক স্টেট (আইএস) গোষ্ঠী বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে। শেখ রহিমুল্লাহ তালেবান ও নারী শিক্ষার পক্ষে এবং আইএসের কঠোর সমালোচক ছিলেন। খবর বিবিসি।

rohimullah hakkaniশেখ রহিমুল্লাহ হাক্কানি

তালেবানের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, আততায়ী এক ব্যক্তি কৃত্রিম পায়ের ভেতরে নরম বিস্ফোরক নিয়ে এসে শেখ রহিমুল্লাহর অফিসেই এ বিস্ফোরণ ঘটায়। গত বছর তালেবান ক্ষমতায় ফিরে আসার পর থেকে দেশটিতে নিহত হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে তিনিই সবচেয়ে প্রভাবশালী নেতা হিসেবে গণ্য।

তালেবান প্রশাসনের মুখপাত্র বিলাল কারিমি বলেছেন, অত্যন্ত দুঃখের সাথে জানানো হচ্ছে যে, সম্মানিত আলেম শেখ রহিমুল্লাহ হাক্কানি শত্রুদের কাপুরুষোচিত হামলায় শহীদ হয়েছেন। কাবুল পুলিশের মুখপাত্র খালিদ জাদরান জানিয়েছেন, বিস্ফোরণে আরও অন্তত চারজন আহত হয়েছেন।

একজন জ্যেষ্ঠ তালেবান কর্মকর্তা জানান, আমরা তদন্ত করছি হামলাকারী এই ব্যক্তি কে এবং কারা তাকে শেখ রহিমুল্লাহ হাক্কানির ব্যক্তিগত অফিসে প্রবেশের জন্য এই গুরুত্বপূর্ণ স্থানে নিয়ে এসেছিল। এটি আফগানিস্তানের ইসলামি আমিরাতের জন্য খুব বড় ক্ষতি।

তালেবান সূত্র জানায়, শেখ রহিমুল্লাহ কোনো সরকারি পদে না থাকলেও তিনি ছিলেন অত্যন্ত প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব, যিনি বছরের পর বছর ধরে তালেবানের অনেক সদস্যকে প্রশিক্ষিত করে তুলেছেন।

অনেক তালেবান কর্মকর্তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ ঘটনায় সমবেদনা জানান। কাবুল পুলিশের সাবেক মুখপাত্র মবিন খান এক টুইটে লেখেন, আপনি আপনার দায়িত্ব পালন করেছেন। ভাগ্যকে তো আর ঠেকানো যাবে না, তবে মুসলিম সম্প্রদায় এতিম হয়ে গেছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়, তালেবান সমর্থক শেখ হাক্কানি জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট খোরাসান প্রদেশের (আইএস-কে) একজন কড়া সমালোচক। আইএস-কে আইএসের একটি আঞ্চলিক সহযোগী হিসেবে আফগানিস্তানে কাজ করে।

শেখ রহিমুল্লাহ আলোচিত ইস্যু নারী শিক্ষাকে সমর্থন করতেন। বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি আফগান নারী ও মেয়েদের শিক্ষার অধিকার থাকা উচিত বলে মন্তব্য করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, শরিয়তে নারীশিক্ষার অনুমতি নেই, এটা বলার কোনো অবকাশ নেই।

জানা গেছে, সর্বশেষ ২০২০ সালে আইএস পাকিস্তানের পেশোয়ার শহরের একটি মাদ্রাসাতেও অনুরূপ হামলা চালিয়েছিল। সে হামলায় সাতজন নিহত হলেও বেঁচে গিয়েছিলেন শেখ রহিমুল্লাহ হাক্কানি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর