আপনি পড়ছেন

গত রাতে বিস্মিত হয়েছে ফুটবল বিশ্ব। প্যারিস সেন্ট জার্মেই, পিএসজির আর্জেন্টাইন তারকা খেলোয়াড় লিওনেল মেসিকে ছাড়াই ব্যালন ডি’অরের ৩০ জনের প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করেছে ফ্রান্স ফুটবল সাময়িকী। এটা মেনে নিতে পারছেন না মেসির ভক্তরা। প্রিয় খেলোয়াড়ের প্রতি এমন অসম্মানের কারণে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

messi psg sad 6লিওনেল মেসি

ব্যালন ডি’অরের প্রাথমিক তালিকায় অবশ্য মেসির না থাকাটা যৌক্তিক। পিএসজির হয়ে গত মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৩৪ ম্যাচে জালের দেখা পেয়েছেন মাত্র ১১ বার। বার্সেলোনার জার্সিতে পেশাদার ফুটবল শুরুর পর এত বাজে সময় কখনই পার করেননি সময়ের অন্যতম সেরা এই ফরোয়ার্ড। ফলশ্রুতিতে ২০০৫ সালের পর এবারই প্রথম ব্যালন ডি’অরের প্রাথমিক তালিকায় জায়গা হলো না মেসির।

শুধু মেসিই নয়, পরিচিত মুখদের মধ্যে নেইমার জুনিয়রও ব্যালন ডি’অরের প্রাথমিক তালিকায় জায়গা পাননি। পিএসজির জার্সিতে গত মৌসুমে নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন ব্রাজিলের এই ফরোয়ার্ড। অবধারিতভাবেই সম্মানজনক পুরস্কারের মনোনয়ন পেয়েছেন করিম বেনজেমা, সাদিও মানে, মোহাম্মদ সালাহ, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, রবার্তো লেভানডফস্কি, কিলিয়ান এমবাপ্পে, আর্লিং হল্যান্ডের মতো তারকা খেলোয়াড়রা।

ballon dorব্যালন ডি’অর

টুইটারে মেসির এক ভক্ত লিখেছেন, ব্যালন ডি’অরের আর কোনো বিশ্বাসযোগ্যতা থাকলো না। এটা এখন ঠাট্টা মশকরায় পরিণত হয়েছে। এই বার্তার সাথে একমত হয়ে আরেক ভক্ত লিখেছেন, আমি কোনো ব্যাখ্যা করতে চাইছি না। বিশ্বের সেরা স্ট্রাইকারদের পুরস্কার দেওয়া এবং মেসিকে সেরা ৩০-এ না রাখার পর আমরা সমর্থকেরা এটাকে ডাকাতি বলে মনে করছি।

জিটি মেসিএফসি নামের একটি আইডি থেকে করা টুইট বার্তায় বলা হয়েছে, ব্যালন ডি’অরের সংক্ষিপ্ত তালিকায় যখন দেখবেন মেসি-নেইমারদের মতো ফুটবলাররা জায়গা পাচ্ছে না, তখন বুঝে নিতে হবে আনুষ্ঠানিকভাবে এই পুরস্কারের মৃত্যু হয়েছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর