advertisement
আপনি পড়ছেন

আলোচিত-সমালোচিত লেখক সালমান রুশদির ওপর হামলায় হতবাক হয়েছেন ভারতে নির্বাসিত বাংলাদেশি লেখিকা তসলিমা নাসরিন। একই সাথে তিনি চিন্তিত বলেও জানিয়েছেন। খবর হিন্দুস্তান টাইমস।

taslima nasrin 2তসলিমা নাসরিন

গতকাল শুক্রবার নিউইয়র্ক থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে শতকা ইনস্টিটিউশনের মঞ্চে হামলার শিকার হন বুকারজয়ী সালমান রুশদি। কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই হাদি মাতার নামের ওই হামলাকারী তাকে ঘুষি মারেন এবং ২০ সেকেন্ডের মধ্যে ১০-১৫ বার ছুরিকাঘাত করেন। পরে পুলিশ এসে গুরুতর আহতাবস্থায় রুশদিকে হাসপাতালে পাঠায়।

এমন হামলা প্রসঙ্গে তাৎক্ষণিক তসলিমা নাসরিন টুইটে লেখেন, আমি এইমাত্র জানতে পেরেছি যে সালমান রুশদির ওপর নিউইয়র্কে হামলা হয়েছে। এ ঘটনায় আমি সত্যিই হতবাক। আমি কখনোই ভাবিনি এটা ঘটবে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে পশ্চিমা দেশগুলোতে বসবাস করছেন। ১৯৮৯ সাল থেকে তাকে সুরক্ষা দেওয়া হচ্ছে। এত সুরক্ষার মধ্যেও যদি তাকে আক্রমণ করা হয়, তাহলে ইসলামের সমালোচনা করা যে কাউকে আক্রমণ করা হতে পারে। আমি বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত।

salman rushdie 1হামলার পর উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে রুশদিকে

রুশদি ১৯৮১ সালে লেখা মিডনাইটস চিলড্রেন এর মাধ্যমে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন, পেয়েছিলেন বুকার পুরস্কারও। কিন্তু দ্য স্যাটানিক ভার্সেস লেখার পর তার পরিচিতি ছড়িয়ে পড়ে। বিশ্বজুড়ে মুসলমানরা এ বইটির জন্য তার সমালোচনায় মুখর হয়। এমনকি ইরানের তৎকালীন ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ রুহুল্লাহ খোমেনি রুশদির হত্যার জন্য বিশাল অংকের পুরস্কার ঘোষণা করেন।

সালমান রুশদির মতো তসলিমা নাসরিনও বিভিন্ন সময় লেখার মাধ্যমে ইসলামের সমালোচনা করেছেন। এ নিয়ে দেশে-বিদেশে অনেক সমালোচনা হুমকির শিকার হতে হয়েছে তাকে। সে কারণে বর্তমান পরিস্থিতিতে সালমানের উপর হামলায় হতবাক হয়ে পড়েছেন তসলিমাও।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর