advertisement
আপনি পড়ছেন

হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে জনপ্রিয় রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান উবার। ১৮ বছরের এক কিশোর মার্কিন এ প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটার সিস্টেম হ্যাক করেছে। অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেস এবং গুগল ক্লাউডসহ উবারের বেশকিছু বাণিজ্যিক টুলে প্রবেশ করতে সক্ষম হয়েছে বলে দাবি ওই কিশোর হ্যাকারের। হ্যাকার নিজেই উবারের স্ল্যাক সিস্টেমে এ বিষয়ে পোস্ট করেছেন।

uber business affected by corona virusউবারের সিস্টেম হ্যাক

উবারের অভ্যন্তরীণ গোপন নথিপত্রের স্ক্রিনশট শেয়ার করে ওই হ্যাকার বলেন, আমি একজন হ্যাকার এবং ডেটা ফাঁসের শিকার হয়েছে উবার।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ এ বিষয়ে উবারের কাছে জানতে চাইলে কোনো ধরনের উত্তর দিতে রাজি হয়নি প্রতিষ্ঠানটি। তবে উবার এরইমধ্যে কর্মীদের বেশকিছু সফটওয়্যার ব্যবহার বন্ধ করে দিয়েছে, এমনটাই জানিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।

কোনো খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে উবারের কম্পিউটার সিস্টেমে প্রবেশ করেনি ওই হ্যাকার। মজা করতে গিয়েই এমনটা করেছেন তিনি।

তবে এক টুইট বার্তায় উবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক ঘটনার তদন্ত করছি। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছি। উবার নিশ্চিত করছে, কোম্পানির পরিষেবায় কোনো সমস্যা নেই।

ইউগা ল্যাবসের সিনিয়র ইঞ্জিনিয়ার স্যাম বলেন, ওই কিশোর হ্যাকার অভ্যন্তরীণ গোপন নথিপত্রের যে স্ক্রিনশট শেয়ার করেছে তা খুবই বিশ্বাসযোগ্য।

উবারের প্রাক্তন প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা জোসেফ সুলিভান ২০১৬ সালে একটি বড়সড় সাইবার হামলা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। হ্যাকারদের ১০ লাখ মার্কিন ডলার দিতে চেয়েছিলেন তিনি। যার বিচার এখনও চলমান রয়েছে। সে ঘটনায় প্রায় ৫৭ মিলিয়ন গ্রাহক এবং ড্রাইভারের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি হয়েছিল।

সাইবার সিকিউরিটির অধ্যাপক অ্যালান উডওয়ার্ড বলেছেন, হ্যাকারের কাছে উবারের হাই অ্যাক্সেস আছে বলে মনে হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষে এটা জানাও কঠিন হবে যে তারা হ্যাকারকে নেটওয়ার্ক থেকে সরিয়ে দিতে পেরেছে কি না।