advertisement
আপনি পড়ছেন

বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে এমনিতেই একঘরে হয়ে পড়েছে রাশিয়া। একের পর এক নিষেধাজ্ঞায় দেশটির খেলাধুলায় পড়েছেন বিরাট নেতিবাচক প্রভাব। ইউক্রেন যুদ্ধের জের ধরে আন্তর্জাতিক ফুটবলে তাদের ওপর অনির্দিষ্টকালের নিষেধাজ্ঞায় দেয় ফিফা ও উয়েফা। এবার আরও একটা ধাক্কা খেল রাশানরা।

putin footballফুটবল মাঠে ভ্লাদিমির পুতিন

রাশিয়ার কাতার বিশ্বকাপ স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে আগেই। প্লে-অফ পর্বে তাদের খেলতে দেওয়া হয়নি। ২০২৪ ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপেও তাদের খেলা হচ্ছে না। ফিফা ও উয়েফার সব ধরনের প্রতিযোগিতায় নিষিদ্ধ থাকা রাশিয়াকে ইউরো বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের ড্র থেকেও বাদ দেওয়া হয়েছে।

বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এমনটিই জানিয়েছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা উয়েফা। তবে রাশিয়াকে সমর্থন দেওয়া বেলারুশকে বাছাইপর্বে রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। যদিও রাশিয়ার ‘বন্ধু’ হওয়ার কারণে বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়েছে বেলারুশ।

অবশ্য বাছাইপর্বে খেলার অনুমতি মিললেও বেলারুশ ও ইউক্রেনকে একই গ্রুপে রাখা হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে উয়েফা। এ বছরের ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে ইউক্রেনের পর সামরিক বিশেষ অভিযান শুরু করে রাশিয়া। যা পরবর্তীতে রূপ নিয়েছে যুদ্ধে। এই যুদ্ধে দ্বিগণ্ডিত হয়ে গেছে গোটা বিশ্ব।

বেশির ভাগ দেশ এবং ক্রীড়া সংস্থাগুলো ইউক্রেনকে সমর্থন দিয়ে রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিন্দা জানিয়েছে। ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের কারণে রাশিয়া জাতীয় দল তো বটেই, দেশটির ক্লাব ফুটবলকেও নিষিদ্ধ করে উয়েফা ও ফিফা। গত মৌসুমে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালের ভেন্যু সেন্ট পিটার্সবার্গ থেকেও সরিয়ে নেওয়া হয়।

এসব নিষেধাজ্ঞা বাতিল চেয়ে সর্বোচ্চ ক্রীড়া আদালতে রাশিয়া আবেদন করলেও তা খারিজ করে দেওয়া হয়। মোট কথা ক্রীড়াঙ্গনে রাশিয়া প্রায় ‘একঘরে’ হয়ে পড়েছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর