আপনি পড়ছেন

রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হওয়া প্রশ্নে মস্কো ও তাদের সমর্থিত বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে থাকা ইউক্রেনের ৪ প্রদেশে শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) গণভোট শুরু হয়েছে। এ গণভোটের মাধ্যমে মস্কো আনুষ্ঠানিকভাবে ইউক্রেনের প্রায় ১৫ শতাংশ ভূখণ্ড নিজেদের সাথে সংযুক্ত করার চেষ্টা করছে। তবে কিয়েভ এই ভোট আয়োজনের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। খবর আল জাজিরা ও রয়টার্স।

ontroversial ukraine referendumsগণভোটের আহ্বান সংবলিত বিলবোর্ড

শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এ গণভোট মঙ্গলবার পর্যন্ত চলবে। গণভোট চলা চার প্রদেশ হচ্ছে লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, খেরসন ও জাপোরিঝিয়া। স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট নেওয়া হবে। তবে দোনেৎস্কে ভোট নেওয়া হবে রাত ৮টা পর্যন্ত।

আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত গণভোট চলার পর দ্রুত ফলাফল ঘোষণা করা হতে পারে। গণভোটের ফল পক্ষে এলে ইউক্রেনের অঞ্চল চারটিকে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন পুতিন।

mass voteভোটারদের কাছে গিয়ে সংগ্রহ করা হচ্ছে ভোট

এদিকে নিরাপত্তাজনিত কারণে ব্যক্তিগতভাবে ভোটদানের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে শুধুমাত্র শেষ দিন, ২৭ সেপ্টেম্বর। বাকি তিনদিন ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে ভোট গ্রহণ করা হবে।

২০ সেপ্টেম্বর ইউক্রেনের চারটি প্রদেশে গণভোট আয়োজনের ঘোষণা দেন সেখানকার রুশ-সমর্থিত কর্মকর্তারা। যে চার প্রদেশে গণভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে, তার মধ্যে লুহানস্ক ও দোনেৎস্ক মস্কো সমর্থিত বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। অন্যদিকে খেরসন ও জাপোরিঝিয়া, আংশিকভাবে রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

গণভোটের সিদ্ধান্ত আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দ্বারা ব্যাপকভাবে সমালোচিত হচ্ছে। ইউরোপীয় রাষ্ট্র এবং যুক্তরাষ্ট্র এ গণভোটকে লজ্জাজনক ও প্রহসন অভিহিত করে জানিয়েছে, রাশিয়ার এই পদক্ষেপ আন্তর্জাতিক আইনের চরম লঙ্ঘন। এটি যুদ্ধকে আরও তীব্র করবে। কোনোভাবেই তারা এ গণভোটকে মেনে নেবেন না বা স্বীকৃতি দেবেন না।

ইউক্রেনও স্পষ্টভাষায় জানিয়ে দিয়েছে, তারা এ গণভোটের ফল মেনে নেবেন না।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর