আপনি পড়ছেন

কিছুদিন আগে অবসরের বিষয়টি জানিয়ে রেখেছিলেন রজার ফেদেরার। এবার আনুষ্ঠানিকভাবে টেনিস কোর্ট থেকে বিদায় নিলেন সুইজারল্যান্ডের ৪১ বছল বয়সী এই টেনিস তারকা। তার বিদায়ের দিনে আবেগী দৃশ্যের অবতারণা দেখেছে গোটা বিশ্ব।

roger federerরজার ফেদেরার

১৯৯৮ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সে টেনিসে নিজের যাত্রা শুরু করেন ফেদেরার। গত দুই ‍যুগের ক্যারিয়ারে নিজেকে নিয়ে গেছে অনন্য উচ্চতায়। অংশগ্রহণ করেছেন মোট ১ হাজার ৫২৭টি প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে। ইউএস ওপেন, উইম্বলডন, অস্ট্রেলিয়ান ওপেন, ফরাসি ওপেনসহ ঝুলিতে পুরেছেন ২০টি গ্র্যান্ড স্লাম।

বিদায়ী ম্যাচটা স্মরণীয় করে রাখতে পারেননি ফেদেরার। ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচে কোর্টে নেমেছিলেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী এবং বন্ধু রাফায়েল নাদালের সাথে জুটি বেঁধে। লন্ডনের ওটু অ্যারেনায় অনুষ্ঠিত লেভার কাপের সে ম্যাচে হড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর টিম ওয়ার্ল্ডের ফ্রান্সেস টিয়াফো ও জ্যাক সক জুটির কাছে ৪-৬, ৭-৬ (৭/২) এবং ১১-৯ ব্যবধানে হেরে যান ফেদেরার-নাদাল।

ফেদেরারের বিদায়ে কেঁদেছেন ২২টি গ্র্যান্ডস্লাম জয়ী নাদালও। ম্যাচ শেষে তাকে জড়িয়ে ধরেন ফেদেরার। চোখের জল মুছে মনোযোগ দেন মাইক্রোফোনে, ‘যে কোনোভাবে সময়টা আমরা পার করে দেব। চমৎকার একটা দিন ছিল। সবাইকে বলেছি আমি অনেক খুশি। কোনো দুঃখ নেই। টেনিস কোর্টে থাকতে পেরে দারুণ লাগছে। নাদালের সাথে খেলতে পারাটা দুর্দান্ত।’

বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের জন্য পরিবারের সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন ফেদেরার, ‘এখানে আমার ছেলে মেয়ে এবং স্ত্রী উপস্থিত আছে। মিরকা ফেদেরার (ফেদেরারের স্ত্রী) অনেক সাপোর্টিভ। সে আমাকে আগেই থামাতে পারতো। কিন্তু সেটা করেনি। সে আমাকে উৎসাহ দিয়েছে। খেলা চালিয়ে যেতে বলেছে। তাই তাকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আমার ক্যারিয়ারের জন্য মা-বাবার অবদানও অনেক।’

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর