আপনি পড়ছেন

ইউক্রেনে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করলে মস্কোকে বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হবে বলে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ইউক্রেনের সব অঞ্চল রাশিয়ার সাথে যুক্ত হবে এবং সেগুলোকে রক্ষা করতে প্রয়োজনে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করা হবে- ক্রেমলিনের এমন হুমকির জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে ওই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করা হয়। খবর আল জাজিরা।

sergey lavrov and jack sullivanসের্গেই ল্যাভরভ ও জ্যাক সুলিভান

রাশিয়ার সাথে একীভূত হবে কি না- এ প্রশ্নে পূর্ব ইউক্রেনের চারটি অঞ্চলে গণভোট চলছে। আগামীকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত এ ভোট চলবে। ভোটের ফল মস্কোর পক্ষে গেলে রুশ পার্লামেন্ট শিগগিরই এ সংযোজনকে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিতে পারে।

ইউক্রেনের চারটি অঞ্চল লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, খেরসন ও জাপোরিজিয়া এই চারটি অঞ্চলকে রাশিয়া গণভোটের মাধ্যমে তার সাথে একীভূত করতে চাচ্ছে। সেটি বাস্তবায়িত হলে পরবর্তী সময়ে এগুলোর ওপর যে কোনো ধরনের হামলাকে রাশিয়ার ওপর হামলা হিসেবে গণ্য করবে মস্কো। সেক্ষেত্রে নিজেদের অঞ্চল রক্ষার্থে প্রয়োজনে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারে দ্বিধা করবে না- যুক্তরাষ্ট্রসহ ইউক্রেনের পশ্চিমা মিত্রদের ইঙ্গিত করে এমন সতর্ক বার্তা উচ্চারণ করেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ।

russian nuclear weapons 1পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের হুমকি দিচ্ছে রাশিয়া

এর প্রেক্ষিতে মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) বলেছেন, ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার যে কোনও পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র চূড়ান্তভাবে প্রতিক্রিয়া জানাবে, যার ফলে মস্কো বিপর্যয়কর পরিণতির সম্মুখিন হবে।

এর আগে গত বুধবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছিলেন, তার দেশ তার ভূখণ্ড রক্ষার জন্য যে কোনও অস্ত্র ব্যবহার করবে। এর দুদিন পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সংবিধান অনুযায়ী রাশিয়ার সব সংরক্ষিত অঞ্চল রাষ্ট্রের সম্পূর্ণ সুরক্ষার অধীনে রয়েছে।

মার্কিন গণমাধ্যম এনবিসির মিট দ্য প্রেস নিউজ প্রোগ্রামে দেওয়া এক বক্তব্যে সুলিভান বলেন, রাশিয়া যদি এই লাইনটি অতিক্রম করে তবে রাশিয়ার জন্য তা বিপর্যয়কর পরিণতি ডেকে আনবে। কারণ সেক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র সিদ্ধান্তমূলকভাবে প্রতিক্রিয়া জানাবে।

রুশ কর্তৃপক্ষ ও তাদের মিত্ররা ইউক্রেনের যে অংশের জন্য গণভোটের আয়োজন করেছে, তা ইউক্রেনের প্রায় ১৫ শতাংশ। আকারের দিক দিয়ে এটি পর্তুগালের সমান। এর আগে ২০১৪ সালে গণভোটের মাধ্যমে রাশিয়া ক্রিমিয়াকে তার অধিভুক্ত করে নেয়, সেটির আকার ছিল প্রায় বেলজিয়ামের সমান।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর