আপনি পড়ছেন

এফ-১৬ যুদ্ধবিমান রক্ষণাবেক্ষণের জন্য কয়েকদিন আগে পাকিস্তানকে ৪৫০ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বিষয়টি নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়েছে ভারত। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মার্কিন এই পদক্ষেপকে ‘ভারতকে বোকা বানানের চেষ্টা’ বলে মন্তব্য করেছেন। জবাবে ওয়াশিংটন জানিয়েছে, ভারতের মতো পাকিস্তানও আমাদের মিত্র। আমাদের কাছে উভয় দেশেরই গুরুত্ব সমান।

antony blinken 4মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকালেই বলেন, যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তানকে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান দিচ্ছে। তারা এটি আমাদের বিরুদ্ধেই ব্যবহার করে। তারপরও ওয়াশিংটন তাদেরকে এ সহায়তা দিচ্ছে। ভারতের সাথে মিত্রতা থাকার পরও যুক্তরাষ্ট্রের এ ধরনের আচরণ কাম্য নয়।

ভারতের এমন মন্তব্যের জবাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন বলেন, ভারতের আপত্তি সত্ত্বেও ওয়াশিংটন পাকিস্তানে অস্ত্র সরবরাহ করবে। সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় পাকিস্তানকে এসব অস্ত্র-সরঞ্জাম দেওয়া হবে। তবে তাদেরকে দেওয়া প্যাকেজে নতুন কোনও বিমান নেই। এখানে কেবল কিছু সিস্টেম ও অস্ত্র আছে।

joyshankar pakistan usa relation পাকিস্তান-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেছেন জয়শঙ্কর

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইসলামাবাদের পরিকল্পনা হচ্ছে সন্ত্রাসীদের হুমকি মোকাবেলায় নিজেদের আরও শক্তিশালী করা এবং সন্ত্রাসবাদকে দেশ থেকে পুরোপুরি নির্মূল করা। পরিস্থিতি মোকাবেলা করে সামনে এগিয়ে যাওয়ার জন্যই এটি দরকার।

এর আগে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস বলেন, ভারত ও পাকিস্তান উভয় দেশের সাথেই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের। তবে দুই দেশের সঙ্গে আমেরিকার পররাষ্ট্রনীতি একেবারেই আলাদা।

নেড প্রাইস আরও বলেন, কোনও একটি দেশের সম্পর্কের ওপর অন্যটি নির্ভরশীল নয়। আমাদের কাছে দুই দেশের গুরুত্ব দুই ধরনের। দুই দেশই কূটনৈতিকভাবে আমেরিকার অংশীদার। তাই আমরা ভারতের সঙ্গে যে সম্পর্ক রাখি, পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে তার প্রভাব পড়বে না। একই কথা প্রযোজ্য ভারতের ক্ষেত্রেও।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর