আপনি পড়ছেন

২০০৯ সালে সফররত শ্রীলঙ্কা টিম বাসে আক্রমণের পর দীর্ঘদিন পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের কোনো আসর বসেনি। অবশ্য দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আয়োজন করতে চেষ্টার কমতি রাখেনি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড, পিসিবি। সময়ের ব্যবধানে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল, আইসিসি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার পর বেশ কয়েকটি দল দেশটিতে সফর করেছে। এই তালিকায় সবশেষ সংযোজন ইংল্যান্ড।

moeen ali 5মঈন আলির নেতৃত্বে সিরিজ জিতেছে ইংলিশরা

সাত ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে গত মাসে পাকিস্তান সফর করে ইংল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দল। এর মাধ্যমে দীর্ঘ ১৭ বছর পর দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে সফরে আসে ইংলিশ বাহিনী। বাবর আজমদের ঢেরা থেকে সুখস্মৃতি নিয়ে ফিরে যাচ্ছে মঈন আলি অ্যান্ড কোং। ৪-৩ ব্যবধানে কুড়ি ওভারের সিরিজ জিতেছে অতিথিরা। সদ্য সমাপ্ত এই সিরিজে পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থার প্রশংসা করেছেন ইংলিশ দলপতি মঈন।

পাকিস্তান বনাম ইংল্যান্ডের মধ্যকার টি-টোয়েন্টি সিরিজটি অনুষ্ঠিত হয়েছে লাহোর এবং করাচিতে। প্রথম তিন ম্যাচের ভেন্যু ছিল করাচি ন্যাশনাল স্টেডিয়াম। শেষ তিন ম্যাচ হয়েছে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে। নিরাপাত্তা নিয়ে সন্তুষ্ট থাকলেও শেষ তিন ম্যাচের খাবার নিয়ে হাতাশা প্রকাশ করেছেন মঈন। 

সিরিজের শেষ ম্যাচে গতকাল পাকিস্তানকে ৬৭ রানে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এই তারকা অলরাউন্ডার বলেন, ‘লাহোরে খাবারে আমি কিছুটা হতাশ হয়েছি। করাচির খাবার সত্যিই চমৎকার ছিল। আমাদের জন্য এটা একটা ভালো সিরিজ ছিল। পুরো সিরিজে ইংলিশ খেলোয়াড়রা ভালো পারফর্ম করেছে।’

‘পাকিস্তানের নিরাপত্তা অসামান্য ছিল। আমরা যা প্রত্যাশা করেছিলাম তার চেয়ে অনেক বেশি পেয়েছি। আমাদের খুব ভালোভাবে দেখাশোনা করা হয়েছে।’ যোগ করেন ইংলিশ দলপতি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর