আপনি পড়ছেন

আয়ারল্যান্ডকে ৩৫ রানে হারিয়ে আরও দুই পয়েন্ট জমা করলো নিউজিল্যান্ড। সবমিলিয়ে নিজেদের গ্রুপে এখন তারাই এক নম্বরে। কিন্তু ৫ ম্যাচ শেষে ৭ পয়েন্ট নিয়েও টেনশনমুক্ত হতে পারেনি কিউইরা।

slউদযাপনেও চিন্তার ছাপ

তাদের পেছনে থাকা ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ারও সুযোগ আছে সেমিফাইনালের টিকিট কাটার। দুই দলের এখনো একটি করে ম্যাচ বাকি। সেক্ষেত্রে এখনই স্পষ্ট না কোন দুই দল যাবে সেমিতে। তবে রানরেট বাড়িয়ে কিছুটা তৃপ্তির ঢেঁকুর গিলতে পারে নিউজিল্যান্ড।

আজ শুক্রবার অ্যাডিলেডে আগে ব্যাটিং করে ৬ উইকেটে ১৮৫ রান করে নিউজিল্যান্ড। বিপরীতে ৯ উইকেট খুইয়ে ১৫০ রান তোলে আয়ারল্যান্ড।

এর আগে কেন উইলিয়ামসনের ঝড় থামিয়ে হ্যাটট্রিক করেন আয়ারল্যান্ডের জশ লিটল। চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যা দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক। এর আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আরব আমিরাতের লেগস্পিনার কার্তিক মেয়াপ্পন আসরের প্রথম হ্যাটট্রিক করেন।

এ নিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ষষ্ঠ হ্যাটট্রিকের দেখা মিললো, ২০০৭ সালে প্রথম হ্যাটট্রিক করেন অস্ট্রেলিয়ার ব্রেট লি।

শুরুটা নিউজিল্যান্ডের ভালো হয়নি। রান তোলার গতি ছিল কম। তবে সেই ধাক্কা পরে ভালোভাবেই সামাল দেয় কিউইরা। ১৮ ওভারে ১৭৩ রান তোলে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে। উইলিয়ামসনকে নেতার ভূমিকায় দেখা যায়। ৩২ বলে চারটি চার ও দুটি ছয়ে হাফ সেঞ্চুরি করেন তিনি। আর ডেভন কনওয়ের সঙ্গে ৪৪ রান ও ড্যারিল মিচেলের সঙ্গে ৬০ রানের জুটিতে দলকে বড় সংগ্রহের পথে নিতে থাকেন।

জবাব দিতে নামা আয়ারল্যান্ড প্রতিপক্ষ তিন পেসার টিম সাউদি, লকি ফার্গুসন ও ট্রেন্ট বোল্টের পেস ভালোভাবে সামাল দিচ্ছিলেন। আয়ারল্যান্ডের দুই ওপেনার অ্যান্ডি বালবির্নি ও পল স্টার্লিং প্রথম ৬ ওভারে তোলেন ৩৯ রান।

এরপর মিচেল স্যান্টনার ও ইশ সোধি বল হাতে নিয়ে দেন ১৩ ও ১৬ রান। পেসারদের পর এই দুই স্পিনারও যেন কূল কিনারা পাচ্ছিলেন না। তবে পরের তিন ওভারে দুজন ৩ ব্যাটসম্যানকে মাঠ ছাড়া করে স্বস্তি ফেরান কিউই শিবিরে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর