আপনি পড়ছেন

শেষ চারে যাওয়ার জন্য নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে জিততেই হতো দক্ষিণ আফ্রিকাকে। অপেক্ষাকৃত কম শক্তির দলের বিপক্ষে এই সমীকরণ মেলাতে পারেনি প্রোটিয়ারা। গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে স্কট অ্যাডওয়ার্ডসের দলের কাছে ১৩ রানে হেরে পরের পর্বের আশা অনেকটাই শেষ করেছে টেম্বা বাভুমা অ্যান্ড কোং।

ned vs saটুর্নামেন্টের দ্বিতীয় জয় পেল ডাচরা

দক্ষিণ আফ্রিকার পরাজয়ে বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানের সেমিফাইনালের রাস্তা পরিষ্কার হয়ে গেল। এই দুই দলের পরবর্তী ম্যাচে যারা জিতবে তারাই শেষ চারের টিকিট হাতে পাবে। তবে সম্ভাবনা পুরোপুরি শেষ হয়নি প্রোটিয়াদের। বৃষ্টির কারণে বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানের মধ্যকার ম্যাচ পরিত্যক্ত হলে শেষ চারে পা রাখবে আফ্রিকান জায়ান্টরা।

অ্যাডিলেডে আগে ব্যাট করতে নেমে ১৫৮ রান জড়ো করে নেদারল্যান্ডস। প্রথম সারির চার ব্যাটসম্যানের কল্যাণে স্কোরবোর্ডে চ্যালেঞ্জিং পুঁজি দাঁড় করাতে পেরেছে ডাচরা। ২৬ বলে তিন চার এবং দুই ছয়ের মারে সর্বোচ্চ ৪১ রানের ইনিংস খেলেন কলিন অ্যাকারম্যান। ৩৭ রান আসে ওপেনার স্টিফেন মাইবার্গের ব্যাট থেকে। ৩০ বলে সাত বাউন্ডারি মারেন মাইবার্গ। এছাড়া টক কুপার ও ম্যাক্স ডাউড করেন যথাক্রমে ৩৫ ও ২৯ রান। ২৭ রানের বিনিময়ে দুই উইকেট নেন কেশভ মহারাজ।

জবাব দিতে নেমে ফ্রেড ক্লাসেন, ব্রেন্ডন গ্লোবার, অ্যাকারাম্যানদের মাপা বোলিংয়ে ১৪৫ রানে থামে দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস। দলীয় ৩৯ রানেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন কুইন্টান ডি কক ও টেম্বা বাভুমা। প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দিয়ে প্রতিরোধ গড়ে দলের জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করতে পারেননি রাইলি রুশো, এইডেন মার্করাম, ডেভিড মিলাররাদের মতো তারকা ব্যাটাররা।

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন রুশো। ১৯ বলে দুই চার মারেন তিনি। বাভুমার ব্যাট থেকে আসে ২০ রান। সমান বল খেলেন অধিনায়ক। ১৮ বলে ২১ রান করেন হেনরিখ ক্লাসেন। সমান ১৭ রানের ইনিংস খেলেন মার্করাম ও মিলার। বল হাতে সবচেয়ে বেশি আলো ছড়িয়েছেন গ্লোভার। দুই ওভার হাত ঘুরিয়ে ৯ রানের বিনিময়ে তিন ব্যাটসম্যানকে সাজঘরের পথ দেখান গ্লোভার। ক্লাসেন নেন দুই উইকেট।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর