আপনি পড়ছেন

আগের ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ৫ রানের হারের ক্ষত এখনও শুকায়নি। সেদিন বৃষ্টি শেষে অনুপযুক্ত মাঠে ব্যাট করতে নামা, ফেক ফিল্ডিংয়ের আইন প্রয়োগ না করার মতো একাধিক অভিযোগ আছে আম্পায়ারদের বিপক্ষে। সেসব নিয়ে এখনও ক্রিকেট পাড়ায় জোর সমালোচনা চলছে। এরই মধ্যে আরও একবার বাজে আম্পায়ারিংয়ের বলি হলো টিম বাংলাদেশ।

memorable shakib al hasan 2ভুল আউট মেনে নিতে পারেননি টাইগার দলপতি

গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে জিতলেই জায়গা হবে সেমিফাইনালে, এমন সমীকরণে অ্যাডিলেড ওভালে আগে ব্যাট করে মাত্র ১২৭ রান জড়ো করেছে বাংলাদেশ। দলের হয়ে ৪৮ বলে সর্বোচ্চ ৫৪ রানের ইনিংস খেলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ২৪ রান আসে আফিফ হোসেন ধ্রুব’র ব্যাট থেকে।

মহাগুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে ১১ তম ওভারে ভুল আম্পায়ারিংয়ের শিকার হয় বাংলাদেশ। শাদাব খানের করা সে ওভারের পঞ্চম বলে লেগ বিফোর আবেদনের প্রেক্ষিতে সাকিবকে আউট দেওয়া হয়। কোনো রকম দেরি না করে আত্মবিশ্বাসের সাথে রিভিউ নেন টাইগার দলপতি।

টিভি রিপ্লাইতে দেখা যায়, সাকিবের ব্যাটের সাথে সামান্য স্পর্শ লেগেছে বলের। কমেন্ট্রি বক্স থেকেও ব্যাটে বল লাগার বিষয়টা আলোচনা করা হচ্ছিল। শুধু তাই নয়, সাকিবের তিন মিটার এগিয়ে আসার বিষয়টিও বিবেচনায় আনা হয়নি।। এরপরও আউটের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেননি থার্ড আম্পায়ার। এমন সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি সাকিব।

এজন্য আম্পায়ারদের সাথে কথা বলতে এগিয়ে যান। তাতেও কোনো লাভ হয়নি। রানের খাতা খোলার আগেই হতাশা নিয়ে মাঠ ত্যাগ করেন তারকা অলরাউন্ডার। তার আগের বলে শান মাসুদের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন সৌম্য সরকার। ২০ রান করেন এই টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান। জোড়া ধাক্কার চাপ সামাল না দিতে পারায় বড় পুঁজি পাওয়া হয়নি বাংলাদেশের।