আপনি পড়ছেন

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্বে পাকিস্তানের সাথে ম্যাচে বাংলাদেশ যে খুব ভালো অবস্থানে ছিল তা বলার উপায় নেই। আবার অধিনায়ক সাকিব নিজেও যে খুব ভালো ফর্মে ছিলেন তাও নয়। তারপরও সাকিবের আউটটিই ছিল ম্যাচের অন্যতম টার্নিং মোমেন্ট। আম্পায়ারের এমন ভুল সিদ্ধান্তে অসন্তুষ্ট বাংলাদেশের উইকেটকিপার ব্যাটার মুশফিকুর রহিম। এক টুইটে তিনি জানান, সিদ্ধান্ত তার মনঃপুত হয়নি।

shakib and mushfiqurমুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসান

বাংলাদেশের ইনিংসের ১১তম ওভারে বল করছিলেন পাকিস্তানের লেগস্পিনার শাদাব খান। ওভারের চতুর্থ বলে আউট হন ১৭ বলে ২০ রান করা সৌম্য সরকার। এরপর ব্যাট করতে নামেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। নিজের প্রথম বলে শাদাবকে ডাউন দ্য উইকেটে গিয়ে মারতে চেয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু শটটি ঠিকভাবে খেলতে পারেননি তিনি। বোলারের আবেদনের প্রেক্ষিতে সাকিবকে এলবিডাব্লিউ দেন আম্পায়ার।

এ আউটের সাথে একমত না হওয়া সাকিব রিভিউ নেন। টেলিভিশন রিপ্লেতে দেখা যায়, বলটি সাকিবের জুতায় লাগার আগে তাঁর ব্যাট ছুঁয়েছিল। কিন্তু বারবার দেখেও এ ব্যাপারে সঠিক সিদ্ধান্ত দিতে পারেননি টিভি আম্পায়ার ল্যাংটন রুসেরে। বরং ফিল্ড আম্পায়ারের দেওয়া আউটের সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন তিনি।

sakib replayসেই বিতকিত রিপ্লে

টিভি আম্পায়ারের পক্ষ থেকে এমন সিদ্ধান্তে মাঠে থাকা সাকিব যেমন হতবাক হয়ে যান, তেমনি বিস্মিত হন অ্যাডিলেড ওভালের প্রেসবক্স ও ধারাভাষ্যকক্ষে থাকা সাংবাদিক-ধারাভাষ্যকাররাও। খেলার এ অংশের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেলে আরেক দফা সমালোচনার মুখে পড়ে আইসিসি বিশ্বকাপের এবারের আম্পায়ারিং।

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক কোচ টম মুডি, ভারতের সাবেক ক্রিকেটার আকাশ চোপড়াসহ অনেকেই মত দেন, এ আউট যথাযথ ছিল না। বাংলাদেশের উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিমও একই রকম মত ব্যক্ত করেন। টুইটারের এক পোস্টে সাবেক এই অধিনায়ক ব্যঙ্গ করে লিখেছেন, টিভি আম্পায়ারের দারুণ সিদ্ধান্ত! সাথে বেশকিছু ব্যাঙ্গাত্মক ইমোজিও ব্যবহার করেন তিনি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর