আপনি পড়ছেন

উইকেটের চারপাশে সমানতালে রান তোলার সামর্থ্য থাকায় সূর্যকুমার যাদবকে এবি ডি ভিলিয়ার্সের সাথে তুলনা করেন ভক্ত-সমর্থক এবং বিশ্লেষকরা। এটাকে সমর্থন করেন খোদ দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ক্রিকেটার। শুধু তাই নয়, সূর্যকুমারের ভবিষ্যৎ নিয়ে খুশি মিস্টার থ্রি সিক্সটি ডিগ্রি হিসেবে পরিচিতি ডি ভিলিয়ার্স।

suryakumar yadav and de villiersডি ভিলিয়ার্স ও সূর্যকুমার

অভিষেকের পর থেকেই ভারতের টি-টোয়েন্টি দলের নিয়মিত মুখ সূর্যকুমার। দেশের জার্সিতে এখন পর্যন্ত খেলেছেন ৩৯টি কুড়ি ওভারের ম্যাচ। যেখানে এই ডানহাতির সংগ্রহ ১ হাজার ২৭০ রান। সম্প্রতি এই ফরম্যাটে ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠে এসেছেন ৩২ বছর বয়সী ক্রিকেটার।

চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও ফর্মের তুঙ্গে আছেন সূর্যকুমার। পাঁচ ম্যাচে ৭৫ গড়ে করেছেন ২২৫ রান। স্ট্রাইকরেট ১৯৩.৯৬। অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন তিনটি। এমন পারফরম্যান্স দেখে সাবেক অধিনায়ক ডি ভিলিয়ার্স বলেই ফেললেন, আগামী দিনের ক্রিকেটের সোনালী পাতায় জায়গা করে নেবেন সূর্যকুমার।

ভারতের প্রথম সারির প্রচারমাধ্যম পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘সূর্যকুমারকে আমার সাথে তুলনা করা যেতেই পারে। এখন তাকে শুধুমাত্র ধারাবাহিকভাবে রান করার দিকে মনোযোগ দিতে হবে। তাকে আরও পাঁচ থেকে দশ বছর ধারাবাহিকভাবে ক্রিকেট খেলে যেতে হবে। তারপর সে নিজেকে ক্রিকেটে খেলোয়াড়দের সোনালী পাতায় খুঁজে পাবে।’

সূর্যকুমারের ভয়ডরহীন ব্যাটিংয়ের ভক্ত বনে গেছেন ডি ভিলিয়ার্স, ‘যখন কোনো ক্রিকেটার স্বাধীনভাবে এবং আনন্দচিত্তে ব্যাট করে, সেটা দেখতে খুবই ভালো লাগে। সূর্য এখন ঠিক সেভাবেই খেলছে। এটা দেখতে পছন্দ করি।’

যদিও এখনই নিজেকে ডি ভিলিয়ার্সের মতো মনে করেন না সূর্যকুমার। গ্রুপ পর্বে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ‘বিশ্বে ৩৬০ ডিগ্রি ক্রিকেটার একজনই আছে তিনি এবি ডি। আমি শুধু তার মতো ব্যাট করার চেষ্টা করি।’