আপনি পড়ছেন

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালটা ‘স্বপ্নের ফাইনাল’ হতে পারল না। সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হেরে বিশ্বকাপ মঞ্চ থেকে বিদায় নিতে হয়েছে ভারতকে। এর আগেও ভারত চারবার সেমিফাইনাল এবং তিনবার ফাইনালে পৌঁছেছিল। কিন্তু শিরোপায় হাত দেওয়া হয়নি। ফলে ভারতীয়রাই প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন, ভারত কি এ যুগের নতুন চোকার্স!

rohit cryingইংল্যান্ডের কাছে পরাজিত হওয়ার পর কেঁদে ফেলেন রোহিত শর্মা

এবারের টুর্নামেন্টে অন্যতম ফেভারিট হিসেবেই যাত্রা শুরু করেছিল টিম ইন্ডিয়া। সেমিফাইনালেও উঠেছিল গ্রুপ সেরা হয়ে। ২০১৩ সালে শেষ বারের মতো কোনও আইসিসি টুর্নামেন্ট জিতেছিল ভারত। আর বিশ্বকাপ মঞ্চে শিরোপা জিতেছিল তারও দুই বছর আগে, ২০১১ সালে। আর যদি কেবল টি-টোয়েন্টির কথা ধরা হয়, তাহলে ভারত প্রথম ও একমাত্র শিরোপা জিতেছিল ২০০৭ সালে।

বিভিন্ন সময় আইসিসির টুর্নামেন্টের ব্যর্থ হয়েছে ভারত। কখনও ফাইনাল, আবার কখনও সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছে। কখনো কখনো গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে।

india world cup win 2011২০১১ সালে সর্বশেষ বিশ্বকাপ শিরোপা জেতে ভারত

২০১৪ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার কাছে হেরে যায় ধোনির দল। ২০১১ সালে এই শ্রীলঙ্কাকেই হারিয়ে ওয়ানডে বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত।

২০১৫ সালে আইসিসি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে শিরোপার লড়াই থেকে ছিটকে যায় ভারতীয় দল। অস্ট্রেলিয়ার ছুড়ে দেওয়া ৩৩০ রানের জবাবে ২৩৩ রানেই অলআউট হয়ে যায় টিম ইন্ডিয়া।

২০১৬ সালে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হেরে যায় ভারত। ১৯২ রানের জবাবে বিধ্বংসী ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারের আগেই সাত উইকেটে জিতে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে মুখোমুখি হয় দুই চিরপ্রতিদ্বন্ধী ভারত ও পাকিস্তান। সে লড়াইয়ে শেষ হাসি হেসেছিল পাকিস্তান। প্রথমে ব্যাট করে তিন উইকেটে ৩৩৮ রান করে পাকিস্তান। বিপরীতে মাত্র ৩১ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ভারতের সংগ্রহ ছিল মাত্র ১৫৮ রান। ১৮০ রানের লজ্জাজনক পরাজয় নিয়ে ফিরতে হয়েছিল ভারতকে।

২০১৯ সালের আইসিসি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পৌঁছেছিল ভারত। সেবার নিউজিল্যান্ডের করা ২৩৮ রানের জবাব দিতে পারেনি ভারত। মাথা নিচু করে সেবারও তারা দেশে ফেরে।

২০২১ সালের ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে পৌঁছেছিল টিম ইন্ডিয়া। তবে সেবারও নিউজিল্যান্ডের গেরো পার হতে পারেনি ভারতীয় দল। পাঁচ দিনের সে খেলায় বাজিমাৎ করেছিল কিউইরা।

গতবার অর্থাৎ ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপার ১২-এর গ্রুপ স্টেজ থেকেই ছিটকে গিয়েছিল ভারত। গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে ১০ উইকেটে হেরে যাওয়ার ধাক্কা সামলাতে পারেনি। পরের ম্যাচও হেরে যায়। পরবর্তী ম্যাচগুলো জিতলেও সেমিফাইনালের দেখা পায়নি ভারত।

এ বছর শিরোপা জয়ের স্বপ্ন দেখছিল ভারত। কিন্তু সেমিফাইনালে ১০ উইকেটের বিশাল হার তাদের সে সুখস্বপ্নে পানি ঢেলে দেয়।

ক্রিকেট বিশ্বে চোকার্স হিসেবে পরিচিত রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার। ভালো অবস্থানে থাকার পরও বারবার পচা শামুকে পা কেটেছে দলটির। নানাভাবে তারা বাদ পড়েছে শিরোপার লড়াই থেকে।

এবারের গ্রুপ পর্বেও তারা পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে ছিল। নেদারল্যান্ডসের কাছে অপ্রত্যাশিত হারে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিতে হয়। স্বাভাবিকভাবেই তাদের নামের সাথে আরেক দফা চোকার্স বিশেষণটি উচ্চারিত হচ্ছে। আরেক দফা শিরোপার কাছাকাছি গিয়েও ফিরে আসায় এবার টিম ইন্ডিয়াকেও তাদের পাশাপাশি চোকার্স উপাধি দেওয়া হচ্ছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর