আপনি পড়ছেন

ইমরান খানের নেতৃত্বে প্রথমবারের মতো ১৯৯২ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপের শিরোপা ঘরে তোলে পাকিস্তান। সেবার ইমরান বাহিনীর প্রতিপক্ষ ছিল ইংল্যান্ড। ফরম্যাট ভিন্ন হলেও আরও একবার বিশ্বমঞ্চের ফাইনালের একই প্রতিপক্ষকে পেয়েছে এশিয়ান জায়ান্ট। তাই ৩০ বছর আগের সেই স্মৃতি ফিরিয়ে আনতে চেষ্টার কমতি রাখতে চান না পাকিস্তানের অধিনায়ক এবং অন্যতম সেরা ব্যাটার বাবর আজম।

babar azam 16বাবর আজম

গত ৯ নভেম্বর সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শেষ চারের প্রথম ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনালে পা রাখে পাকিস্তান। অথচ বাবরদের গ্রুপ পর্বের শুরুটা হয় খুবই বাজে। প্রথম দুই ম্যাচেই হেরে যায় পাকিস্তান। শেষ পর্যন্ত ঘুরে দাঁড়িয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা, নেদারল্যান্ডস এবং বাংলাদেশের বিপক্ষে টানা জয় তুলে নিয়ে শেষ দল হিসেবে সেমিফাইনালের টিকিট কাটে একবারের চ্যাম্পিয়নরা।

আগের ম্যাচগুলোতে ভুগলেও সেমিফাইনালে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন বাবর। এছাড়া উইলো হাতে দুর্দান্ত সময় পার করছেন মোহাম্মদ রিজওয়ান, মোহাম্মদ হারিস, ইফতিখার আহমেদ, মোহাম্মদ নাওয়াজরা। বল হাতে বেশ ধারাবাহিক শাহিন শাহ আফ্রিদি, শাদাব খান, হারিস রউফ, নাসিম শাহরা। সবকিছু মিলিয়ে ফাইনালে ইংল্যান্ডকে হারাতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ পাক দলপতি।

প্রচারমাধ্যমকে বাবর বলেন, '১৯৯২ সালের সাথে মিল আছে। আমরা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার চেষ্টা করব। পাকিস্তানের এই দলটার অধিনায়কত্ব করাও গর্বের। বিশেষ করে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডের মতো ভেন্যুতে ফাইনালের নেতৃত্ব দিতে পারলে তো কথাই নেই। ইনশাআল্লাহ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে আমরা চেষ্টার কোনো কমতি রাখবো না।'

'টানা দুই ম্যাচ হেরে টুর্নামেন্ট শুরু করায় আমাদের মাশুল দিতে হয়েছে। কিন্তু সেখান থেকে আমাদের দল খুবই দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল। আমরা ভালো ক্রিকেট খেলছি। ফাইনালেও সেটা ধরে রাখার চেষ্টা করবো।'