আপনি পড়ছেন

যৌন হয়রানির অভিযোগে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চলাকালীন গ্রেপ্তার হন শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং অলরাউন্ডার দানুশকা গুনাথিলাকা। এরপর থেকেই সিডনির পারকেলা জেলে ছিলেন গুনাথিলাকা। অবশেষে জামিন পেয়েছেন এই লঙ্কান তারকা ক্রিকেটার। তবে সেটা বেশ কয়েকটি শর্ত সাপেক্ষে।

danushka gunathilaka 4আপাতত মুক্ত লঙ্কান ক্রিকেটার

সিডনির ডাউনিং সেন্টার লোকাল কোর্ট থেকে গুনাথিলাকার জামিন মঞ্জুর করেন ম্যাজিস্ট্রেট জানেট ওয়াহলকুইস্ট। জেল থেকেই জামিনের বিষয়টি শুনতে পান গুনাথিলাকা। জামিন পেলেও দেশে ফিরে যেতে পারছেন না তিনি।

শর্তের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, দেড় লাখ অস্ট্রেলিয়ান ডলার জরিমানা দিতে হবে গুনাথিলাকাকে। এছাড়া টিন্ডার কিংবা অন্য কোনো ধরনের ডেটিং অ্যাপস ব্যবহার করতে পারবেন না। কোনো ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করতে চাইলেও লিগ্যাল টিমের সহায়তা নিতে হবে ৩১ বছর বয়সী ক্রিকেটারকে।

জানা গেছে, তদন্তে কর্তৃপক্ষকে পূর্ণ সহযোগিতা করেছেন গুনাথিলাকা। ইতোমধ্যে পাসপোর্ট জমা দিয়েছেন তিনি। তাই তাসমান পাড়ের দেশটি ছেড়ে পালানোর কোনো সুযোগ নেই তার। আগামী ১২ জানুয়ারি এই মামলা পুনরায় আদালতে উঠবে। ততোদিন নির্দিষ্ট একটা জায়গায় থাকতে হবে গুনাথিলাকাকে। সেই সাথে প্রতিদিন পুলিশের কাছে রিপোর্ট করতে হবে তাকে।

জামিন হওয়ায় খুশি গুনাথিলাকার আইনজীবী মুরুগান থানরাজ। এটা যোগ্য বিচার বলে মনে করেন থানরাজ, ‘এই ধরনের পরিস্থিতিতে গুনাথিলাকার জামিন না পাওয়ার কোনো কারণ নেই।’

তবে গুনাথিলাকার জামিনের বিরোধিতা করেছেন পুলিশ প্রসিকিউটর কেরি অ্যান ম্যাককিনন। লঙ্কান ক্রিকেটার জামিন পাওয়ায় অভিযোগকারী ওই নারীর নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি। একই সাথে গুনাথিলাকা দেশ ছেড়ে পালাতে পারেন বলেও সংশয় প্রকাশ করেছেন ম্যাককিনন।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর