আপনি পড়ছেন

ভারতীয় বিয়ে মানেই জাঁকজমক, আনন্দ-উল্লাস এবং উৎসবের সমারোহ। বিয়ে উপলক্ষে বর কনের পাশাপাশি উভয়ের পরিবার এবং বন্ধু বান্ধবরা আনন্দে মেতে ওঠেন। আর এর মধ্যেই ঘটে চলে বিভিন্ন ঘটনা। কখনো তা আনন্দদায়ক, কখনো তা বিষাদে রূপ নেয়। বিয়েও ভেঙে যায়। সম্প্রতি ভারতের উত্তরাখন্ড রাজ্যে এমন একটি ঘটনা ঘটেছে। তবে এক্ষেত্রে স্বয়ং কনে বিয়ে ভেঙে দিয়েছেন। নিতান্ত তুচ্ছ কারণেই এটি ঘটেছে। সস্তা বিয়ের পোশাক দেখে কনে বিয়ে করতে অস্বীকার করেন।

lehengaছবি - সংগৃহীত

স্থানীয় মিডিয়ার খবরে বলা হয়, উত্তরাখন্ডের হলদওয়ানির রাজপুরা এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। গত জুন মাসে পারিবারিকভাবে ছেলে এবং মেয়ের বাগদান অনুষ্ঠান হয়। ৫ নভেম্বর বিয়ের দিন নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু বিয়ের দিন ছেলের পরিবার থেকে পাঠানো ১০ হাজার রুপির (ভারতীয় মুদ্রা) লেহেঙ্গা দেখে সেটি ছুড়ে ফেলে দেয় কনে। মেয়েটি আরও দামি লেহেঙ্গা আশা করেছিল। ফলে কনে বিয়ে করতে অস্বীকার করে সে।    

স্থানীয়রা জানিয়েছে, ছেলেটির বাবা মেয়েটিকে তার পছন্দের লেহেঙ্গা কেনার জন্য নিজের এটিএম কার্ডও দিয়েছিলেন। কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয়নি। বিষয়টি শেষপর্যন্ত পুলিশের কাছে পৌঁছায়। অবশেষে ঘণ্টার পর ঘণ্টা তুমুল তর্ক-বিতর্কের পর বিয়েটি ভেঙে দিতে সিদ্ধান্ত নেয় উভয় পক্ষ। যদিও পুলিশ এই দ্বন্দ্বের সমাধান করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করেছিল, কিন্তু দুই পক্ষ শিগগিরই বুঝতে পেরেছিল যে সর্বোত্তম সিদ্ধান্ত হবে আলাদা হয়ে যাওয়া।

সূত্র: নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর