আপনি পড়ছেন

চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণার পর চোটের কবলে পড়ে ফ্রান্সের একের পর এক খেলোয়াড়। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় ছিটকে গেছেন। এ তালিকায়  সর্বশেস সংযোজন করিম বেনজেমা। তবে ফ্রান্স কোচ দিদিয়ের দেশম জানিয়ে দিয়েছেন বেনজেমার বদলে দলে কাউকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে না।

france 1দোহায় অনুশীলনে ফ্রান্স দল

এর পেছনে তার যুক্তি, 'এই দলটা বেশ মানসম্পন্ন। মাঠে ও মাঠের বাইরে সবকিছুতেই তারা ঐক্যবদ্ধ। তাদের ওপর আমার আস্থা আছে।'

চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণার পর এ নিয়ে দ্বিতীয় খেলোয়াড় হারাল ২০১৮ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। এর আগে হাঁটুর লিগামেন্ট ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ছিটকে যান লাইপজিগের স্ট্রাইকার ক্রিস্তোফা এনকুনকু। আসর শুরুর আগেই চোটের কারণে দুই মিডফিল্ডার পল পগবা ও এনগোলো কঁন্তেকে আগেই হারায় দেশমের দল।

'ডি' গ্রুপে থাকা ফ্রান্সের প্রথম ম্যাচ আগামী মঙ্গলবার, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। এই গ্রুপের অন্য দুই দল ডেনমার্ক ও তিউনিসিয়া।

এদিকে বিশ্বকাপে এক ভয়ঙ্কর অভিশাপের সামনে দাঁড়িয়ে ফ্রান্স! যা কার্যত শুরু হয়েছে গত ২০১০ সালের বিশ্বকাপ থেকে। সেবার বিশ্বকাপে শিরোপা ধরে রাখার মিশনে ছিল ইতালি। যারা ২০০৬ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়। কিন্তু খেতাবরক্ষক ইতালি দক্ষিণ আফ্রিকায় ২০১০ বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয়। পরবর্তী দুটি বিশ্বকাপেও তাদের একই অবস্থা।

২০১৪ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন স্পেন ২০১৪ সালে পরবর্তী বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকেই ছিটকে যায়। আর ২০১৪ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন জার্মানিও রাশিয়ায় ২০১৮ বিশ্বকাপ থেকে গ্রুপ পর্বের গণ্ডি টপকাতে পারনি। অর্থাৎ গত ১২ বছরে যারাই বিশ্বকাপে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে অবতীর্ণ হয়েছে, তাদের প্রত্যেককেই গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে।