আপনি পড়ছেন

বিশ্বকাপে ভরা গ্যালারি থাকবে এটাই যেন রীতি হয়ে আছে। কিন্তু সোমবার রাতে সেনেগাল ও নেদারল্যান্ডস ম্যাচের প্রথমার্ধ পর্যন্ত পূর্ণ হয়নি গ্যালারি। প্রথম বাঁশির সময় গ্যালারির শত শত আসন ফাঁকা দেখা যায়। এরপর সমর্থকদের জন্য খুলে দেওয়া হয় দরজা। বিনাটিকিটে খেলা দেখেন তারা।

free entry for fansদোহার আল থুমামা স্টেডিয়াম

ঝামেলার সূত্রপাত আয়োজক কাতার ও ফিফার ই-টিকিটিং ব্যবস্থায়। ইংল্যান্ড-ইরান ম্যাচেও এই সমস্যা দেখা দিয়েছে। তবে ওই ম্যাচের টিকিট সমস্যাটা গুরুতর হয়নি। কম্পিউটারে কারিগরি ত্রুটির কারণে এমনটি হয়েছে। খলিফা স্টেডিয়ামে ইংল্যান্ড-ইরান ম্যাচটা কোনোরকম শেষ করে পরের ম্যাচটি নিয়ে দেখা দিলো তুমুল বিতর্ক।

সেনেগাল-নেদারল্যান্ডস ম্যাচটি আয়োজন করা হয়েছে দোহার আল থুমামা স্টেডিয়ামে। স্টেডিয়ামের বাইরে হাজার হাজার সমর্থক বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে থাকে। একটা পর্যায়ে খুলে দেওয়া হয় মূল ফটক। সেখানে টিকিটের বদলে দেখা হয় কাতারের ভিসা আবেদনপত্র।

যেটি দেখিয়ে টিকিট ছাড়াই স্টেডিয়ামে প্রবেশ করেন দর্শকেরা। অথচ যারা আগেই টিকিট কেটেছিলেন তাদের অনেকেই প্রবেশ করতে পারেননি। প্রযুক্তিগত ত্রুটির কারণেই টিকিট হাতে পাচ্ছিলেন না ওই সব দর্শক। স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কার প্রতিনিধি সরেজমিনে বিশৃঙ্খলার এই দৃশ্য দেখেছেন।

এ সময় প্রকৃত টিকিটধারী অনেকেই অভিযোগ করেন। যদিও এসব অভিযোগ আমলে নেয়নি কাতার প্রশাসন। আগামী বুধবার আল থুমামা স্টেডিয়ামে ম্যাচ রয়েছে স্পেন ও কোস্টারিকার। ওই ম্যাচের আগে ভেন্যু ও টিকিটিং ব্যবস্থা কাতার ঠিক করতে পারে কিনা সেটাই দেখার বিষয়।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর