আপনি পড়ছেন

কাতার বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচটা সৌদি আরবের সাথে জিতেই শুরু করা, তারপর মেক্সিকো ও পোল্যান্ডকে ধীরে সুস্থে মোকাবেলা করা, মোটামুটি এ-ই ছিল আর্জেন্টিনার হিসাব। কিন্তু দুর্বল এশিয়ান দল সৌদির কাছে হেরে হিসাব নিকাশ পাল্টে গেছে তাদের। শরীরী ভাষাতেও চরম হতাশা প্রকাশ পেয়েছে। তবে পরিসংখ্যান বলছে, প্রথম ম্যাচ হেরেও ফাইনাল পর্যন্ত যাওয়ার ইতিহাস আছে আর্জেন্টিনার।

argentina team after defeatবিষণ্ন আর্জেন্টিনা দল

১৯৯০ সালে আগেরবারের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে খেলতে নেমেছিল ম্যারাডোনার আর্জেন্টিনা। কিন্তু সে বার প্রথম ম্যাচেই ক্যামেরুনের কাছে ০-১ গোলে হেরে বসে তারা। তবে শেষ পর্যন্ত হারের সেই ধাক্কা সামলে একের পর এক শক্তিশালী প্রতিপক্ষকে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছে গিয়েছিল ম্যারাডোনার দল। ফাইনালে পশ্চিম জার্মানির কাছে দলটি হেরে যায়, তবে অনেকেই মনে করেন, কারসাজি করে হারানো হয়েছিল আর্জেন্টিনাকে।

ওইবার ছাড়াও আরও বেশ কয়েকবার প্রথম ম্যাচে হেরে বিশ্বকাপ শুরু করে আর্জেন্টিনা। ১৯৩৪ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই সুইডেনের কাছে ২-৩ হেরে বিদায় নেয় তারা। ১৯৫৮ সালেও প্রথম ম্যাচে পশ্চিম জার্মানির কাছে ১-৩ গোলে হেরে যায় তারা। ১৯৭৪ সালে প্রথম ম্যাচে হেরে যায় পোল্যান্ডের কাছে, ২-৩ গোলে। ১৯৮২ সালের বিশ্বকাপে তারা প্রথম ম্যাচে বেলজিয়ামের কাছে ০-১ ব্যবধানে হেরে যায়। ১৯৯০ সালেও প্রথম ম্যাচে হারে তারা। ক্যামেরুনের কাছে ০-১ গোলে পরাজিত হয়। তবে শেষ পর্যন্ত রানার্স আপ হয় সাদা-আকাশী জার্সিধারীরা।

messi 23বিষণ্ন মেসি

সৌদি আরবের মতো র‌্যাংকিংয়ের নিচে থাকা একটি দলের কাছে হেরে গিয়ে হতাশ মেসিরা। আত্মবিশ্বাসে বড় একটি ধাক্কা খেয়েছে আগের ৩৬ ম্যাচে অপরাজিত থাকা দলটি। তবে আর্জেন্টাইন আইডল ম্যারাডোনার অনুপ্রেরণা নিয়ে আবারো ফাইনাল পর্যন্ত পৌঁছাতে পারেন কি না মেসিরা, সেটাই এখন দেখার বিষয়।