আপনি পড়ছেন

বিশ্ব ফুটবলে আরবদের এর চেয়ে ভালো দিন পার হয়েছে কি না বলা মুশকিল। প্রথম ম্যাচে ফেভারিট আর্জেন্টিনাকে সৌদি আরবের হারিয়ে দেওয়া এবং পরের ম্যাচে শক্তিশালী ডেনমার্ককে তিউনিসিয়ার ঠেকিয়ে দেওয়া আরবজুড়ে আনন্দের ঢেউ ছড়িয়ে দিয়েছে। খবর আলজাজিরা।

saudi supporter in stadiumস্টেডিয়ামে সৌদি সমর্থকরা গলা ফাটিয়েছে সমানে

বিশ্বকাপের ৯২ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম আরব কোনো দেশে বিশ্বকাপের আয়োজন করা হয়েছে। ফলে এমনিতেই আরবরা ছিল আনন্দে উদ্বেল। এরইমধ্যে গতকালের দুই ম্যাচের অবিশ্বাস্য ফল অন্যরকম আবহ ছড়িয়ে দিয়েছে আরবজুড়ে।

কাতার বিশ্বকাপে মঙ্গলবার আর্জেন্টিনাকে ২-১ গোলে হারিয়ে দিয়ে বিশ্বকে চমকে দেয় এর আগে বিশ্বকাপে মাত্র তিনটি ম্যাচে জয় পাওয়া সৌদি আরব। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে শক্তিশালী ডেনমার্কের বিরুদ্ধে গোলশূন্য ড্র করতে সমর্থ হয় তিউনিসিয়া। উভয় ম্যাচে সৌদি আরব ও তিউনিসিয়ার সমর্থকরা যেভাবে নিজ নিজ দলকে অনুপ্রাণিত করছিল, আরবের মাটিতে সেটিও ছিল অন্যরকম এক অভিজ্ঞতা।

tunisian supporter in stadiumড্রকেই জয়ের সমান মেনেছে তিউনিসিয়ার সমর্থকরা

জোহরা দাহরাউই নামের তিউনিসিয়ার একজন সমর্থক বলেন, আজকের দিনটি অবিশ্বাস্য একটি দিন। আরবদের জন্য গর্বের দিন। প্রথম ম্যাচে সৌদি আরব বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে আমরা সেরাদের বিরুদ্ধে খেলতে পারি এবং জিততেও পারি। পরে আমরা তিউনিসিয়ানরা দেখিয়ে দিয়েছি, বিশ্বের সেরা দলগুলোর বিরুদ্ধে আমরা ভয়হীনভাবেই খেলতে পারি এবং তাদের ঠেকিয়ে দিতে পারি।

তিউনিসিয়াকে সমর্থন করতে এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে আসা আলজেরিয়ান নাগরিক আইয়ুব ঘেরবি বলেন, আমরা তো মনে করেছিলাম দুটি ম্যাচই হেরে যাব। কেউ বিশ্বাস করেনি, আমরা না হেরে মাঠ ছাড়তে পারবো। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা-ই হয়েছে। সৌদি আরব আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে দিয়েছে। আর আমরা ঠেকিয়ে দিয়েছি ডেনমার্ককে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর