আপনি পড়ছেন

বাকি সতীর্থদের মতো আর্জেন্টিনাকে হারানোর উদযাপনে মেতে উঠা হয়নি ইয়াসির আল শাহরানির। গুরুতর আহত হয়ে ততক্ষণে চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে চলে যান সৌদি আরবের এই লেফট ব্যাক। তার চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন সৌদি আরবের প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান।

al shahraniভয়ানক চোট পেয়েছেন শাহরানি

চলমান বিশ্বকাপে গ্রুপ ‘সি’তে নিজেদের প্রথম ম্যাচে গতকাল আর্জেন্টিনাকে ২-১ গোলে পরাজিত করে সৌদি আরব। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের ঘটনা। প্রতিপক্ষের একটি আক্রমণ ঠেকাতে এগিয়ে আসেন গোলরক্ষক মোহাম্মদ আল ওয়াইস। একই সময় বলের নাগাল নেওয়ার চেষ্টায় ছিলেন শাহরানি।

তাতেই বাধে বিপত্তি। লাফিয়ে ওঠা ওয়াইসের হাঁটুর জোরালো আঘাত লাগে শাহরানির মুখে। সাথে সাথেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন সৌদি ক্লাব আল হিলালের এই ফুটবলার। অল্প সময়েই তার মুখ রক্তে ভেসে যায়। অবস্থা বেগতিক দেখে শাহরানিকে স্ট্রেচারে করে মাটের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়।

পরবর্তীতে এক্সরে রিপোর্টে জানা যায়, শাহরানির মুখের এবং চোয়ালের বাঁ দিকের হাড় ভেঙে গেছে। তাই সুস্থ হতে উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন রক্ষভাগের এই খেলোয়াড়ের। এমতাবস্থায় এগিয়ে আসেন সৌদি প্রিন্স সালমান। তার নির্দেশে প্রাইভেট জেটে জার্মানি পাঠানো হয় শাহরানিকে। শুধু তাই নয়, নিয়মিত তার চিকিৎসার খোঁজখবর রাখছেন সালমান।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর