আপনি পড়ছেন

কাতার বিশ্বকাপ শুরু হয়েছে গত ২০ নভেম্বর। বিয়ার, সমকামিতার ওপর নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বারবার বিতর্ক উঠেছে। অনেক আগে থেকেই ছিল মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলোর প্রতিবাদ-সমালোচনা। তারপরও বিনিয়োগকারীরা ঠিকই বিনিয়োগ করছেন কাতার বিশ্বকাপে। শুধু তাই নয়, বিপুল অঙ্কের লাভের আশাও করছেন তারা। খবর ব্লুমবার্গ নিউজ।

fifa world cup 5ফিফা বিশ্বকাপ কাতার ২০২২

জানা গেছে, এবারের বিশ্বকাপে সাতটি সংস্থা সরাসরি বিনিয়োগকারী হিসেবে যুক্ত রয়েছে। এর বাইরে ৩২টি দলের সাথে বিনিয়োগকারী হিসেবে রয়েছে আরও ৬৯টি সংস্থা। এসব সংস্থার মূল কেন্দ্র যেসব দেশে সেখানে মানবাধিকার, সমকামিতার বিষয়গুলো খুবই আলোচিত বিষয়। নিজের দেশে তারা এসব নিয়ে ব্যাপক সরব। কিন্তু বিশ্বকাপের এসব নিয়ে তারা মোটেও মুখ খুলছে না।

ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, ৭৬টি সংস্থার মধ্যে ২০টি সংস্থা বলেছে, মানবাধিকার রক্ষায় তাদের অবস্থান পরিষ্কার। তাই বিশ্বকাপ চলাকালে নিজেদের কার্যক্রমে কিছুটা পরিবর্তন আনবে তারা। কিন্তু সেটা কতটুকু দৃশ্যমান হবে সে বিষয়ে কিছু জানাননি। অন্যদিকে ১৩টি সংস্থা জানিয়েছে, তারা এরইমধ্যে নিজেদের প্রচারের পদ্ধতিতে বদল এনেছে। এক্ষেত্রেও কিভাবে করেছে তা বিস্তারিত কিছু জানায়নি। বাকি সংস্থাগুলোতো কোনো কথাই বলেনি।

qatar world cup 9বিশ্বকাপ উপলক্ষে চলছে বিজ্ঞাপন

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিনিয়োগকারীদের এ রহস্যময় আচরণের মূল কারণ হচ্ছে বিশ্বকাপের দর্শক সংখ্যা। এবারের বিশ্বকাপ দেখছেন প্রায় ৫০০ কোটি দর্শক, যা পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার দুই-তৃতীয়াংশ। খেলা দেখার সাথে সাথে এসব দর্শক সরাসরি সেসব সংস্থার বিজ্ঞাপনও দেখতে পাবেন। বিশাল এই প্রচারের সুযোগ বারবার আসে না বলে সে লোভ সামলানো কঠিন।

জানা গেছে, চার বছর আগে রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকা আয় হয়েছিল ফিফার। কাতার বিশ্বকাপের আয়ের সেই অংক আরও বেশি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ কারণেই ফিফা আয়োজক দেশ কাতারকে চটিয়ে এ মুহূর্তে কোনো গ্যাঞ্জামে যেতে চাইছে না। বরং কাতারের পক্ষ হয়ে সবাইকে নিয়ম-কানুন মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছে।

ইউরোপের গণমাধ্যম বিশ্লেষক সারা সিমোন বলেছেন, ৫-১০ বছর আগে মানবাধিকার নিয়ে বিশ্বে যে পরিস্থিতি ছিল, তার প্রতিবাদে যেভাবে আন্দোলন হতো, পরিস্থিতি এখন তার চেয়ে বেশি জটিল। এখন আরও বেশি প্রতিবাদ দরকার। কিন্তু সবার উপরে থাকছে আর্থিক মুনাফা। বিশাল এই সুযোগ আসে চার বছর পরপর। তাই সে সুযোগ তারা হাতছাড়া করতে চায় না। বিশেষ করে কোভিডের কারণে বিশ্বের প্রায় সব সংস্থার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। তাই অন্য সব দিকে তাকানো বাদ দিয়ে সেই ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে সবাই।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর