আপনি পড়ছেন

বাঁচা মরার সমীকরণ নিয়ে তিউনিসিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামে অস্ট্রেলিয়া। হতাশ হতে হয়নি গ্রাহাম আর্নল্ডের শিষ্যদের। আফ্রিকান দলকে ১‘-০ গোলে পরাজিত করেছে তাসমান পাড়ের প্রতিনিধিরা। এটা চলমান আসরে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম জয়।

australia football team 4একমাত্র গোলটা করেন ডিউক

‘ডি’ গ্রুপে গত ২৩ নভেম্বর নিজেদের প্রথম ম্যাচে ফ্রান্সের কাছে ৪-১ গোলে হেরে যায় অস্ট্রেলিয়া। শেষ ষোল’র আশা টিকিয়ে রাখার জন্য তাই তিউনিসিয়ার বিপক্ষে জয়ের বিকল্প ছিল না ওশেনিয়া অঞ্চলের দলটির। গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে আগামী ৩০ নভেম্বর ডেনমার্কের বিপক্ষে মাঠে নামবে ক্যাঙ্গারুরা।

২২ নভেম্বর শক্তিশালী ডেনমার্কের সাথে গোলশূন্য ড্র করে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করে তিউনিসিয়া। সে ম্যাচের আত্মবিশ্বাস কাজে লাগিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আরও ভালো কিছু করার প্রত্যয় নিয়ে মাঠে নামে দলটি। সে লক্ষ্যে ম্যাচের ১৯ মিনিটে প্রথম সুযোগও আসে তাদের সামনে। বিপদজ্জনক স্থানে বল পান ইউসেফ মাসাকনি। কিন্তু প্রতিপক্ষের বাঁধায় শট নিতে পারেননি এই ফরোয়ার্ড।

দুই মিনিট পর আরও একটি সুযোগ পান মোহাম্মদ দ্রাগের। এই রাইট ব্যাক কাম উইঙ্গারের নেওয়া শট পোস্টের ওপর দিয়ে চলে যায়। দুইবার গোলের হাত থেকে বেঁচে ফেরা অস্ট্রেলিয়া ২৩ মিনিটে লিড নেয়। ডি বক্সে সতীর্থের বাড়ানো ক্রস থেকে দারুণ এক হেডে ঠিকানা খুঁজে নেন মিচেল ডিউক।

এগিয়ে গিয়ে প্রথমার্ধের বাকি সময়ে জমাট রক্ষণের পথ বেছে নেয় অস্ট্রেলিয়া। তাই তিউনিসিয়ার একাধিক প্রচেষ্টা মুখ থুবড়ে পড়ে। অন্যদিকে তিউনিসিয়ার গোলরক্ষকের বাঁধার কারণে ব্যবধান বাড়িয়ে বিরতিতে যেতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। 

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণের চাপ বাড়িয়ে দেয় ম্যাচজুড়ে বল দখল এবং আক্রমণে এগিয়ে থাকা অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু বরাবরই দলটির সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দেয় অস্ট্রেলিয়ার রক্ষণভাগ। ম্যাচের শেষ দিকে তো আর্নল্ডের দলকে বোতলবন্দী করে রেখেছিল তিউনিসিয়া। এরপরও কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায়নি।