আপনি পড়ছেন

জয় দিয়েই এবারের বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করেছে পর্তুগাল। এইচ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে গত ২৪ নভেম্বর ঘানাকে ৩-২ ব্যবধানে পরাজিত করেছে ফার্নান্দে সান্তোসের দল। দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামার আগে বড় ধরনের দুঃসংবাদ পেল পর্তুগিজরা। ইনজুরিতে পড়েছেন দলটির সেন্টার ব্যাক দানিলো পেরেইরা।

danilo pereiraদানিলো পেরেইরা

দ্বিতীয় ম্যাচকে সামনে রেখে গতকাল দলীয় অনুশীলন করেছে পর্তুগাল। সেখানেই বেধেঁছে বিপত্তি। অনুশীলনের সময় পেরেইরার পাঁজরের তিনটি হাড় ভেঙে গেছে। এজন্য আপাতত মাঠের বাইরে ছিটকে গেছেন প্যারিস সেন্ট জার্মেই, পিএসজি তারকা। আজ এক বিবৃতিতে পর্তুগিজ ফুটবল ফেডারেশন বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ঘানাকে হারানোর ম্যাচে শুরুর একাদশে ছিলেন পেরেইরা। চোট থেকে সুস্থ হতে রক্ষণভাগের এই খেলোয়াড়কে ঠিক কতদিন মাঠের বাইরে থাকতে হবে সে বিষয়ে এখনও কোনো তথ্য দেয়নি পর্তুগাল। তবে ৩১ বছর বয়সী ফুটবলারকে নিয়ে খুব বাজে খবর প্রকাশ করেছে পর্তুগিজ প্রচারমাধ্যম।

জানা গেছে, গ্রুপ পর্বের বাকি দুই ম্যাচে পেরেইরার না খেলার সম্ভাবনা প্রায় শতভাগ। এমনকি রাউন্ড অব সিক্সটিনেও উঠলেও রক্ষণভাগের এই খেলোয়াড়কে পাওয়া নিয়ে যথেষ্ট শঙ্কা রয়েছে। গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আগামী ২৯ নভেম্বর উরুগুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে ২০১৬ সালের ইউরো চ্যাম্পিয়নরা।

আসন্ন ম্যাচটিতে পূর্ণ পয়েন্ট পেলে পরের পর্বের টিকিট হাতে পাবে পর্তুগাল। হারলে তৃতীয় তথা শেষ ম্যাচের অপেক্ষা করতে হবে। যেখানে ২ ডিসেম্বর ইউরোপের দলটির প্রতিপক্ষ এশিয়ান পরাশক্তি দক্ষিণ কোরিয়া। একটি করে ম্যাচ শেষে গ্রুপের শীর্ষে অবস্থান করছে পর্তুগাল। সমান এক পয়েন্ট করে নিয়ে পরের দুটি স্থানে আছে যথাক্রমে দক্ষিণ কোরিয়া এবং উরুগুয়ে। কোনো পয়েন্ট না পাওয়া ঘানার অবস্থান তলানিতে।