আপনি পড়ছেন

ইরানের পতাকা থেকে আল্লাহ শব্দটি সরিয়ে দেওয়ার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে তেহরান। দেশটির ফুটবল ফেডারেশন ফিফার কাছে এ অভিযোগ জানিয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ইরানের পতাকা থেকে ইসলামিক রিপাবলিকের চিহ্ন হিসেবে আল্লাহর নামটি উল্লেখ থাকে। কিন্তু মার্কিন ফুটবল ফেডারেশনের ইনস্টাগ্রাম পোস্টে ইরানের পতাকা থেকে সেই চিহ্ন মুছে ফেলা হয়েছে। সংস্থাটি দাবি করছে সাম্প্রতিক হিজাব বিরোধী আন্দোলনে সমর্থন করার জন্যই তারা এই পদক্ষেপ নিয়েছে। তবে তাদের এই শাস্তিস্বরূপ আমেরিকাকে দশ ম্যাচের জন্য সাসপেন্ড করার দাবি জানিয়েছে ইরান। খবর শিকাগো ট্রিবিউন।

iran flagযুক্তরাষ্ট্রের বিকৃত করা পতাকা

আগামীকাল মঙ্গলবার গ্রুপ পর্বের নিজেদের শেষ ম্যাচে কাতারের আল তুমামা স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্র। তার আগেই ফিফার কাছে সরকারিভাবে অভিযোগ জানিয়ে ইরানের ফুটবল ফেডারেশন বলেছে, একেবারে অপেশাদারের মতো আচরণ করেছে আমেরিকার ফুটবল ফেডারেশন। কাতার বিশ্বকাপে পয়েন্ট টেবিল উল্লেখ করতে গিয়ে তারা ইরানের বিকৃত পতাকার ছবি ব্যবহার করে। তাদের এ আচরণের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানায় ইরান।

ইরানের দাবিতে বলা হয়েছে, কোনে ব্যক্তি বা গোষ্ঠী যদি একটি দেশের অখণ্ডতার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়, তাহলে ফিফার নিয়ম অনুযায়ী তাদের দশ ম্যাচের জন্য সাসপেন্ড করার বিধান রয়েছে। ইরানের জাতীয় পতাকা বিকৃতির অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধেও একই সাজা দেওয়া হোক। এবারের বিশ্বকাপ থেকেই বের করে দেওয়া হোক তাদের।

iran flag in world cupবিশ্বকাপের মাঠে ইরানের পতাকা

মার্কিন ফুটবল ফেডারেশন দাবি করেছে, ইরানের প্রতিবাদীদের সমর্থন করতেই তারা এ কাজ করেছে। রোববার সকালে এক বিবৃতিতে তারা জানায়, মৌল-মানবাধিকারের জন্য লড়াইরত ইরানের নারীদের প্রতি সমর্থন দেখাতে সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলোতে তারা সরকারি পতাকা ত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিশ্বকাপের পয়েন্ট টেবিল দেখাতে গিয়ে তারা ইরানের যে পতাকাটি ব্যবহার করেছে, সেটি কেবল সবুজ, সাদা আর লাল রঙ বহন করছে। প্রবল সমালোচনার মুখে পড়ে পরে অবশ্য বিকৃত পতাকার ছবি সরিয়ে নেয় আমেরিকার ফুটবল ফেডারেশন।

উল্লেখ্য, ইরানের পতাকার মধ্যখানে পদ্মফুলের মতো যে নকশা রয়েছে সেটি মূলত আল্লাহ শব্দের একটি ক্যালিওগ্রফি রূপ। ইরানের পতাকায় এই চিহ্ন থাকায় দেশটি ইসলামিক রিপাবলিক হিসেবে পরিচিত হয়। পতাকার অবিচ্ছেদ্য এই অংশটি তুলে ফেলে যুক্তরাষ্ট্র ক্ষমাঅযোগ্য অপরাধ করেছে বলে দাবি করেছে ইরান। তারা এখন ফিফার পদক্ষেপ নেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর