আপনি পড়ছেন

ভারতের কেরালায় আদানি গ্রুপের বন্দর নির্মাণকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে গ্রামবাসীর সংঘর্ষ হয়েছে। বন্দরবিরোধী জেলেরা থানায় হামলা ও ভাংচুর চালালে সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত ৮০ জন আহত হয়েছে। কেরালার তিরুভানান্তপুরামে রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় আজ সোমবার (২৮ নভেম্বর) ৩ হাজার গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। খবর বিবিসি ও এনডিটিভি।

kerala fishermanআদানি বন্দর নির্মাণ আটকাতে সহিংস বিক্ষোভ করে আসছে জেলেরা

এশিয়ার শীর্ষ ধনী গৌতম আদানি নিজের ব্যবসার সুবিধার জন্য কেরালার বিঝিনজামে একটি বন্দর নির্মাণ শুরু করেছিলেন। ওই বন্দরসহ লজিস্টিক কোম্পানি নির্মাণের জন্য ২৩ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করছেন তিনি।

ভারতীয় এই ব্যবসায়ী চেয়েছিলেন, এই বন্দরের মাধ্যমে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমের লাভজনক ব্যবসার রুট কব্জাসহ বিশ্বব্যাপী ব্যবসাকে আরও নাগালের মধ্যে নিয়ে আসতে।

তবে কয়েকমাস গ্রামবাসী ওই বন্দর নির্মাণের বিরোধিতা করে আসছিলেন। গ্রামের অধিকাংশই খ্রিস্টান জেলে। তাদের অভিযোগ, এই বন্দর নির্মাণের কারণে উপকূলে ভাঙন শুরু হয়েছে। এতে জীবন জীবিকা ব্যাহত হচ্ছে তাদের।

গ্রামবাসী নির্মাণকর্মীদের বাধা দেওয়ায় এবং নির্মাণসামগ্রী ঢুকতে না দেওয়া বন্দর নির্মাণকাজ কয়েক মাস ধরে বন্ধ রয়েছে।

সম্প্রতি কেরালার প্রাদেশিক আদালতের আদেশ নিয়ে নির্মাণকাজ শুরু করেন নির্মাণকারীরা। তবে কাজে বাধা দেওয়ায় পুলিশ বেশ কয়েকজন জেলেকে আটক করে।

এই আটকের প্রতিবাদে রোববার রাতে শত শত মানুষ স্থানীয় থানায় হামলা চালায়। তারা পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয় এবং কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর করে।

পুলিশ কর্মকর্তা অজিত কুমার জানান, গ্রামবাসীর হামলায় ৩৬ পুলিশ আহত হয়েছেন।

বিক্ষোভকারী জেলেদের নেতা জোসেফ জনসন বলেন, পুলিশের লাঠিপেটায় কমপক্ষে ৫০ জন জেলে আহত হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ৩ হাজারের বেশি গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর