আপনি পড়ছেন

জয়টা কঠিন ছিল। নক আউট পর্বে যাওয়া তো প্রায় অসম্ভবই। খুব স্বাভাবিকভাবেই শক্তিশালী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পেরে উঠল না ওয়েলস। মঙ্গলবার রাতে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার লড়াইয়ে ইংলিশদের কাছে ৩-০ গোলে হেরে গেছেন গ্যারেথ বেল এন্ড কোং।

england thrashed walesওয়েলসকে উড়িয়ে গ্রুপসেরা ইংল্যান্ড

এই হারে স্বপ্নের অভিযান শেষ হয়ে গেল দীর্ঘ ৬৪ বছর পর বিশ্বকাপে ফেরা দলটির। 'বি' গ্রুপের চার নম্বর দল হিসেবে কাতার বিশ্বকাপ থেকে বাড়ি ফিরল ওয়েলস। তিন ম্যাচে সাত পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই নক আউট পর্বের টিকিট কাটল হট ফেভারিট ইংল্যান্ড। আগামী রোববার প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে ইংলিশের প্রতিপক্ষ আফ্রিকান জায়ান্ট সেনেগাল।

শেষ ষোলোর এই যাত্রায় গ্রুপে ইংল্যান্ডের সঙ্গী হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে ড্র করা দলটা আজই দেখল এই বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের মুখ। দিনের অন্য মাচে ইরানকে ১-০ গোলে হারিয়েছে পশ্চিমা বিশ্বের দলটি। তিন পয়েন্ট থাকা ইরান ড্র করলেই চলতো। কিন্তু ম্যাচটা হেরেই বসল তারা।

এবারের বিশ্বকাপে ফেভারিট দলগুলোর একটি ইংল্যান্ড। থ্রি লায়নদের বিপক্ষে এমনিতেও ওয়েলসের রেকর্ড খুব একটা ভালো না। হারতে হয়েছে টানা ছয় ম্যাচ। এবার একাধারে সাত নম্বর ম্যাচেও হারল ওয়েলস। তবে প্রথমার্ধজুড়ে ভালোই লড়াই করেছিলেন বেল এন্ড কোং। তবু শেষ রক্ষা হলো না ওয়েলসের।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে পরপর দুই গোলে কপাল পোড়ে ওয়েলসের। এক মিনিটের ব্যবধানে গোল করেন দলের দুই তরুণ ফরওয়ার্ড মার্কাস রাশফোর্ড ও ফিল ফোডেন। ৬৮ মিনিটে ব্যক্তিগত ডাবলস পূরণ করেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফরওয়ার্ড। খুব স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচে আর ফিরতে পারেনি ওয়েলস।

ইংল্যান্ড আরও গোলের সুযোগ পেয়েছিল। কিন্তু সুযোগ হাতছাড়া করেছেন জুডে বেলিংহাম, হ্যারি কেন ও ফিলিপস। শেষ দুজন অবশ্য দুটি গোলের এসিস্ট করে কিছুটা হলেও শাপমোচন করেছেন।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর