আপনি পড়ছেন

গোল বানিয়ে দিয়ে রেকর্ডবুকে নাম লেখালেন ইংল্যান্ডের হ্যারি কেন। দলটির হয়ে এক বিশ্বকাপে তিন গোলে অ্যাসিস্ট করেছিলেন ডেভিড বেকহ্যাম। ২০০২ বিশ্বকাপে তিনি অ্যাসিস্টগুলো করেন। এবার গ্রুপ পর্বেই তাকে ধরে ফেললেন হ্যারি কেন।

david beckham ২০০২ সালের রেকর্ডটি স্পর্শ করেন হ্যারি কেন

সময়টা যদিও খুব একটা ভালো যাচ্ছে না হ্যারি কেনের। ক্লাবে নিয়মিত গোল পেলেও বিশ্বকাপে তার উল্টো চিত্র। ইরানের বিপক্ষে তো চোট পাওয়ায় ম্যাচের শেষদিকে তুলে নেওয়া হয়েছিল তাকে। সেই চোট কাটিয়ে ফেরেন যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। সর্বশেষ ম্যাচে ওয়েলসকে ৩-০ গোলে পরাজিত করে ইংলিশরা। যে ম্যাচেও গোল পাননি। তবে গোলে অবদান রেখেছেন।

এবার বড় জয়ে কাতার বিশ্বকাপ শুরু করে ইংল্যান্ড। নিজেদের প্রথম ম্যাচে ৬-২ ব্যবধানে উড়িয়ে দেয় ইরানকে। সেই ধারাবাহিকতা দ্বিতীয় ম্যাচে ধরে রাখতে পারেনি ৬৬ এর চ্যাম্পিয়ন দেশটি। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে চিন্তা বাড়ায়। তবে শেষ ম্যাচে ওয়েলসকে হারিয়ে শেষ পর্যন্ত নক আউটের টিকিট কাটে তারা।

গতিময় ফুটবল দিয়ে বুকায়ো সাকা, জুড বেলিংহাম, রাহিম স্টার্লিং মার্কাস রাশফোর্ড, জ্যাক গ্রিলিশরা ইংল্যান্ডের হাতে আরেকটা ট্রফি দিতে চায়। ৫৬ বছর আগে সর্বশেষ বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছিল থ্রি-লায়ন্সরা। এরপর কেটে গেছে দীর্ঘ সময়। এই পাঁচ দশকেরও বেশি সময় ধরেই আক্ষেপে পুড়েছে ইংল্যান্ডের ভক্ত-অনুরাগীরা। সেই আক্ষেপের অবসান চান কোচ সাউথগেটও।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর