আপনি পড়ছেন

ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে দারুণ এক গোলে তিউনিশিয়ার সমর্থকদের হতাশ করে দেন অ্যান্টনি গ্রিজম্যান। সে গোলের হাসি অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেনি। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি, ভিএআর দেখে তা বাতিল করে দেন ম্যাচ পরিচালক মাইকেল কনগার। সেটা নিয়ে আপত্তি তুলেছে ফ্রান্স ফুটবল ফেডারেশন, এফএফএফ।

offside goal controversyরেফারিদের সাথে কথা বলছেন গ্রিজম্যান

‘ডি’ গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে গতকাল ফ্রান্সকে ১-০ গোলে পরাজিত করে তিউনিশিয়া। এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচের ৫৮ মিনিটে আফ্রিকান দলটির হয়ে একমাত্র গোলটি করেন ওয়াহবি খাজরি। এবারের আসরে জালাল কাদেরির দলের একমাত্র জয়। অন্যদিকে ফ্রান্সের প্রথম পরাজয়।

লিড নিয়ে অবশ্য স্বস্তিতে থাকতে পারেনি তিউনিশিয়া। গোল হজমের পর থেকেই তাদের ওপর মুহুর্মুহু আক্রমণ চালায় ফ্রান্স। তবে কোনভাবেই ম্যাচে ফিরতে পারছিল না ডিফেন্ডিং বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। এভাবে নির্ধারিত সময় কেটে যায়। যোগ করা সময় শেষ হওয়ার ১১ সেকেন্ড আগে জালে বল জড়ান গ্রিজম্যান। সতীর্থ চৌমেনির বাড়ানো বল সরাসরি তার কাছে আসেনি। প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের গায়ে লাগা বল পান অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ তারকা।

সেই গোলের পর রেফারিও শেষ বাঁশি বাজান। এরপরই তাকে গ্রিজম্যানের গোলটি অফসাইড সন্দেহে ভিএআর চেক করার আদেশ দেওয়া হয়। সাথে সাথেই সাইড পিচে ছুঁটে গিয়ে মনিটর দেখেন কনগার এবং গোলটি বাতিল করে দেন। তবে ফরাসি ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থার দাবি, সিদ্ধান্ত নিতে প্রযুক্তিগত ভুল করেছেন রেফারি।

এক বিবৃতিতে এফএফএফ লিখেছে, ‘আমাদের মতে, অ্যান্টনি গ্রিজম্যানের গোলটা ভুলবশত বাতিল করা হয়েছে। এজন্য আমরা অভিযোগ তৈরি করছি। খেলা শেষ হওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই অভিযোগ দায়ের করতে হয়।’