আপনি পড়ছেন

২০২১ সালে বিশ্ব বাজারে পোশাক রপ্তানিতে একক দেশ হিসেবে ভিয়েতনামকে পেছনে ফেলে আবারো দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। যেন হারানো মুকুট ফিরে পেল বাংলাদেশ। ২০২০ সালে বাংলাদেশেকে পেছনে ফেলে দ্বিতীয় স্থানে উঠে গিয়েছিল ভিয়েতনাম।

exportভিয়েতনামকে পেছনে ফেলে আবারো দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বাংলাদেশ

বুধবার বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা (ডব্লিউটিও) বিশ্ব বাণিজ্য পরিসংখ্যান শীর্ষক প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্ব বাজারে ২০২০ সালে ভিয়েতনাম ৬.৪০ শতাংশ পোশাক রপ্তানি করে। ২০২১ সালে তা কমে আসে ৫.৮০ শতাংশে। অপরদিকে ২০২০ সালে বাংলাদেশের রপ্তানির পরিমাণ ছিল ৬.৩০ শতাংশ। ২০২১ সালে তা ৬.৪০ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। 

ডব্লিউটিও’র প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গত বছর বাংলাদেশ থেকে পোশাক রপ্তানি বার্ষিক ২৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। পোশাক রপ্তানিতে ২০২০ সালে বড় ধরনের ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। ভিয়েতনামের ৭ শতাংশ বৃদ্ধির বিপরীতে বাংলাদেশের কমে গিয়েছিল ১৭ শতাংশ।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্ব বাজারে পোশাক রপ্তানিতে প্রথম স্থানে আছে চীন। ২০২০ সালে চীনের পোশাক রপ্তানি ছিল ৩১.৬০ শতাংশ। ২০২২ সালে তা বেড়ে গিয়ে দাঁড়ায় ৩২.৮০ শতাংশে। দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। তবে একক দেশ হিসেবে বাংলাদেশ দ্বিতীয়। তৃতীয় অবস্থানে আছে ভিয়েতনাম। এরপরই আছে যথাক্রমে তুরস্ক, ভারত, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, হংকং এবং পাকিস্তান।

রেকর্ড রপ্তানি আয়, এক মাসে ৫০০ কোটি ডলার

এদিকে বিশ্বজুড়ে চলমান অস্থিরতার মধ্যেও বাংলাদেশে রেকর্ড রপ্তানি আয় হয়েছে। এ বছরের নভেম্বরে দেশের রপ্তানি আয় ৫০০ কোটি ডলার ছাড়িয়েছে, কোনো একক মাসে এত বেশি রপ্তানি আয় আগে কখনো আসেনি, বাংলাদেশের ইতিহাসে এটাই প্রথম।

বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, নভেম্বরে রপ্তানি আয় হয়েছে ৫০৯ কোটি ২৫ লাখ ডলার, যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৭ শতাংশ বেশি। আগের বছরের নভেম্বরের চেয়ে ২৬ শতাংশ বেশি। গত বছরের নভেম্বরে রপ্তানি আয় ছিল ৪০৪ কোটি ১৪ লাখ ডলার। 

এর আগে সবচেয়ে বেশি রপ্তানি আয় এসেছিল এ বছরের জুনে, যার পরিমাণ ছিল ৪৯০ কোটি ৮০ লাখ ডলার।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর