আপনি পড়ছেন

বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর সিঙ্গাপুর ও নিউইয়র্ক। জীবনযাত্রার ব্যয় বিবেচনায় শহর দুটি যৌথভাবে সারাবিশ্বে শীর্ষস্থানে রয়েছে। ১৭২টি শহর নিয়ে ওয়ার্ল্ডওয়াইড কস্ট অব লিভিং সার্ভে শীর্ষক জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। ব্রিটিশ সাময়িকী দ্য ইকোনমিস্টের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট এ জরিপ চালিয়েছে।

singapore excelent sightগত ১০ বছরে আটবার সিঙ্গাপুর বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহরের তকমা নিয়েছে

জরিপে দেখা গেছে, সিঙ্গাপুরে বিভিন্ন পন্যের গড় মূল্য গত এক বছরে ৮ দশমিক ১ শতাংশ বেড়েছে। ২০২১ সালে পরিচালিত একই জরিপে পূর্ববর্তী বছরের তুলনায় পন্যের গড় মূল্যে ৩ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি দেখা যায়। চীন সরকারের অনুসৃত শূন্য কোভিড নীতির কারণে সরবরাহ চেইনে সৃষ্ট বিপর্যয় ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ চলতি বছর মূল্যস্ফীতি বেশি হবার অন্যতম বড় কারণ।

গত ১০ বছরে আটবার সিঙ্গাপুর ব্যয়বহুল শহরের তালিকার শীর্ষে অবস্থান নিয়েছে। গত বছর দেশটি প্যারিসের সঙ্গে যৌথভাবে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে ছিল। সিঙ্গাপুর বিশ্বে সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর হওয়ায় অবাক হবার তেমন কিছু নেই। কেননা শহরটিতে গাড়ির সংখ্যা সীমিত রাখতে কর্তৃপক্ষের কড়াকড়ির কারণে পরিবহন ব্যয় অনেক বেশি। আবাসন, পোশাক, পানীয় ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় পন্য ও সেবার দামও সিঙ্গাপুরে বেশি।

নিউইয়র্ক এবারই প্রথম তালিকায় উঠে এসেছে। যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য প্রধান শহরেও জীবনযাত্রার ব্যয় আগের তুলনায় বেড়েছে। গতবছর ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় নবম অবস্থানে থাকা লস অ্যাঞ্জেলেস এবার চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে। গতবার শীর্ষ দশে না থাকলেও স্যান ফ্র্যান্সিসকো এ বছর অষ্টম শীর্ষ ব্যয়বহুল শহর হিসেবে শনাক্ত হয়েছে। ব্যয়ের বিচারে শীর্ষস্থানীয় শহরের তালিকায় সবচেয়ে বড় উত্থান হয়েছে যে দশটি শহরের, তার ছয়টিই যুক্তরাষ্ট্রের। এর মধ্যে রয়েছে আটলান্টা, স্যান ডিয়েগো ও বোস্টন।

গত বছরের তুলনায় এবার মার্কিন শহরগুলো বেশি ব্যয়বহুল হিসেবে চিহ্নিত হবার একটা বড় কারণ হলো ডলারের চাঙ্গাভাব। অন্যদিকে যে সব দেশের মুদ্রা বর্তমানে দুর্বল অবস্থায় রয়েছে, সেখানকার শহরগুলোও তুলনামূলক কম ব্যয়বহুল বলে পরিচিত হয়েছে। জাপানের ওসাকা শহর গতবার তালিকার ১০ নম্বরে থাকলেও এবার ৪৩তম অবস্থানে নেমে গেছে। দক্ষিণ কোরিয়ার বুসান শহর আগের চেয়ে ২৫ ধাপ নিচে নেমে ব্যয়বহুল শহরের তালিকার ১০৬ নম্বরে পৌঁছেছে।

ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় সবচেয়ে বড় উত্থান ঘটেছে মস্কো ও সেন্ট পিটার্সবার্গের। রাশিয়ার রাজধানী শহরটি আগের চেয়ে ৮৮ ধাপ এগিয়ে বর্তমানে ৩৬তম অবস্থানে রয়েছে। একইভাবে সেন্ট পিটার্সবার্গ ৭০ ধাপ এগিয়ে ৭৩তম অবস্থানে এসেছে। পুঁজিপ্রবাহ ও আমদানি নিয়ন্ত্রণ এবং রপ্তানিকৃত তেল-গ্যাসের দামকে রুবলে রূপান্তরের কারণে রাশিয়ার স্থানীয় মুদ্রাটি চলতি বছর ভীষণ চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। মস্কো ও সেন্ট পিটার্সবার্গ আগের চেয়ে ব্যয়বহুল হিসেবে শনাক্ত হবার এটাই কারণ।

জরিপ অনুযায়ী, শীর্ষ ১০ ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় রয়েছে যথাক্রমে সিঙ্গাপুর, নিউইয়র্ক, তেল আবিব, হংকং, লস অ্যাঞ্জেলেস, জুরিখ, জেনেভা, স্যান ফ্রান্সিসকো, প্যারিস, কোপেনহেগেন ও সিডনি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর