আপনি পড়ছেন

রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ফের অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়েছে ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের বড় একটা অংশ। সর্বশেষ রাশিয়া ৭০টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে কিয়েভ ও এর আশপাশের অঞ্চলে। এতে বিশাল অঞ্চল বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করে। গতকাল সোমবার রাতে ইউক্রেন প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এক বক্তব্যে দাবি করেছেন, বেশকিছু ক্ষেপণাস্ত্র গুলি করে ভূপাতিত করা হয়েছে। খবর আল জাজিরা।

russian missile attacksরাশিয়ান হামলায় অন্ধকারে ইউক্রেন

সামনে আরও ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলে জানিয়েছে ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ। সদ্য মেরামত করা বিদ্যুৎ অবকাঠামো আবারও ধ্বংস হয়ে গেছে। এ হামলায় চারজন নিহত হওয়ার কথাও জানিয়েছেন জেলেনস্কি।

ইউক্রেন প্রেসিডেন্ট সতর্ক করে বলেন, আরও অনেক এলাকায় বিদ্যুৎহীন অবস্থা বিরাজ করতে পারে। তবে আমরা স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনার জন্য সবকিছু করব। জাতীয় বিদ্যুৎ সরবরাহকারী ইউক্রেনারগো স্বীকার করেছে, নতুন করে হামলায় ইউক্রেনের মেরামত করার বিদ্যুৎ ব্যবস্থা আবারও বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

খবরে বলা হচ্ছে, সর্বশেষ হামলায় কিয়েভ অঞ্চলের যে অংশ সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, সেই এলাকায় যুদ্ধ শুরুর আগে ১.৮ মিলিয়ন বা ১৮ লাখ মানুষ বসাবস করত। এই এলাকায় বিদ্যুৎলাইন কবে সচল হবে তার নিশ্চয়তা দিতে পারেননি অঞ্চলটির গভর্নর। তবে তিনি বলেছেন, কয়েক মাস অন্ধকার অবস্থা বিরাজ করতে পারে।

ইউক্রেনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রুশ হামলায় কিয়েভ, ভিনিৎসিয়া, দক্ষিণে ওডেসা এবং উত্তরে সুমি অঞ্চলের বিদ্যুৎকেন্দ্র সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দেশটির প্রায় অর্ধেক বিদ্যুৎ ব্যবস্থা গত কয়েক মাসের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে বাসিন্দারা আলোহীন ও ঠান্ডার মতো পরিস্থিতির মধ্যে পড়েছে। গত ২৩ নভেম্বরের হামলাটি ছিল সবচেয়ে ভয়াবহ। সে হামলায় ইউক্রেনের বড় বড় বিদ্যুৎ অবকাঠামো ধ্বংস হয়েছিল।

জেলেনস্কি বেসামরিক অবকাঠামোর ওপর এই হামলাকে যুদ্ধাপরাধ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। তবে মস্কো সাধারণ নাগরিকদের ওপর হামলা অস্বীকার করেছে।

এদিকে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, আগামী বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সংকট নিয়ে তারা একটি ভার্চুয়াল বৈঠক করবেন।

ওয়াশিংটন ডিসিতে ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের সিইও কাউন্সিলে ব্লিঙ্কেন বলেন, যতক্ষণ না পুতিন একটি অর্থপূর্ণ কূটনীতিতে না ফিরছেন, ততক্ষণ আমরা ইউক্রেনের পাশে আছি। আমরা দেশটিকে সহায়তা করতে প্রস্তুত।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর