আপনি পড়ছেন

রাজধানীর নয়াপল্টনস্থ বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। নেতাকর্মীরা যেন ঢুকতে না পারে সে জন্য কার্যালয়ের প্রধান দরজায় পাহারা বসিয়েছে পুলিশ। কার্যালয়ের সামনে কাকরাইল নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে ফকিরাপুলের রাস্তাটি বন্ধ রাখা হয়েছে।

mirza fakhrul islam alamgir 16নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে ফিরে যান দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে কার্যালয়ে প্রবেশের চেষ্টা করেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। কিন্তু তাকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। নাইটিঙ্গেল মোড়ে তার গাড়ি আটকে দেয় পুলিশ।

এ সময় মির্জা ফখরুল উপস্থিত পুলিশ সদস্যদের বলেন, ‘আমি আমার কার্যালয়ে যেতে পারব না? এ কেমন কথা? এটা আমাদের অফিস, আমাদের প্রপার্টি। উত্তরে পুলিশকে বলেন, ‘সরি স্যার, বিএনপি কার্যালয়ে যাওয়ার অনুমতি নেই। পুলিশের ওপর সেখান থেকে বোমা নিক্ষেপ করা হয়েছে। জায়গাটিকে ‘প্লেস অব অকারেন্স’ হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। সিআইডি ক্রাইম সিন কাজ করছে।’

পরে উপস্থিত সাংবাদিকদের মির্জা ফখরুল বলেন, আমাকে পার্টি অফিসে যেতে দেওয়া হলো না। একটি গণতান্ত্রিক দেশের শর্ত হচ্ছে রাজনৈতিক দল তার স্বাভাবিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে। একজন মহাসচিব যদি তার অফিসেই যেতে না পারে। সেখানে গণতন্ত্র তো দূরের কথা, সভ্য সামাজিক পরিবেশেই বিরাজ করছে না। এটা সম্পূর্ণরূপে বিএনপির ১০ তারিখের সমাবেশ নস্যাৎ ও গণতন্ত্র ধ্বংস করার চক্রান্ত।

গতকাল বুধবারও বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ঢুকতে পারেননি মির্জা ফখরুল। কার্যালয়ে ঢুকতে চাইলে পুলিশ তাকে বাধা দেয়। পরে কার্যালয়ের সামনেই বসে পড়েন মির্জা ফখরুল।