আপনি পড়ছেন

নেতাকর্মীদের মাঠে সতর্ক অবস্থানে থাকার নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১৯৭৫ সালের পর আমরা শুধু মার খাচ্ছি। এখন আর মার খাওয়ার সময় নেই। এখন থেকে যে হাত মারতে আসবে, সে হাত ভেঙে দিতে হবে। 

sheikh hasina 19প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

৮ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ভেসে আসেনি। আওয়ামী লীগ কারও পকেটের সংগঠন না। আওয়ামী লীগ জাতির পিতার হাতে গড়া সংগঠন। বিএনপি জিয়াউর রহমানের উর্দি পরা পকেট থেকে বের হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সাজাপ্রাপ্ত আসামি। তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে ব্রিটিশ সরকারে সঙ্গে যোগাযোগ করব। দেশে এনে তার সাজা বাস্তবায়ন করব।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আগুন জ্বালানোর রাজনীতি আবার শুরু করেছে তারা। বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। এখন থেকে কেউ আগুন দিতে এলে, তার হাত আগুনে পুড়িয়ে দিতে হবে। বিএনপি-রাজাকারদের আর ক্ষমতায় আসতে দেওয়া হবে না। ২০০১ সালে গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিয়ে বিএনপি ক্ষমতায় এসেছিল। এবারও তারা ভাবছে সে রকম কিছু করে ক্ষমতায় আসবে। কিন্তু সেটা আর হচ্ছে না। আমরা জানি, কোথায় কী হচ্ছে। দেশকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে দেবো না।’

সাংবাদ মাধ্যমের মালিকদের প্রতি ইঙ্গিত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অনেকে আছে বিএনপিকে তেল মারছে। এত তেল মারা কিসের জন্য। তাদের কত তেল আছে, আমি দেখব।’

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর