আপনি পড়ছেন

স্মার্টফোনে বিজয় সফটওয়্যার থাকা বাধ্যতামূলক, কিন্তু ব্যবহার বাধ্যতামূলক নয় বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’ উপলক্ষে আজ বুধবার (২৫ জানুয়ারি) এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

mosthofa jobbarসংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার

মন্ত্রী বলেন, ‘মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী কোন সফটওয়্যার রাখবেন বা রাখবেন না, তা তার স্বাধীনতা। মোবাইল ফোন কেনার পরে তিনি এক সেকেন্ডও তার ফোনে বিজয় নাও রাখতে পারেন, আনইনস্টল করে দিতে পারেন। এতে কোনো বাধ্যবাধকতা নেই।’

দেশের মোবাইলফোন উৎপাদক ও আমদানিকারকদের ক্ষেত্রে স্মার্টফোনে বাধ্যতামূলক বিজয় সফটওয়্যার থাকার বিষয়টি টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা-বিটিআরসি বলেছে। তবে সরকারও মনে করে দেশে যারা মোবাইল ফোন উৎপাদন করবেন এবং আমদানি করা হবে, তাতে বিজয় সফটওয়্যার থাকতে হবে বলে যোগ করেন মোস্তফা জব্বার।

সাংবাদিকে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘‘মোস্তাফা জব্বার বিজয় ২০২৩ সালে বানায়নি। এটা বানানো হয়েছে ১৯৮৮ সালে। ১৯৮৮ সালে যে বিজয় বানানো হয়েছে, তার হাত ধরে বাংলাদেশের সংবাদপত্র কাকে ‘ডিজিটাল অক্ষর’ বলে তা জেনেছে।’’

সাংবাদিকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা খোঁজ নিয়ে দেখেন, দেশের কতগুলো সংবাদপত্র বিজয়ে প্রকাশিত হয়, বাংলা একাডেমির বইমেলায় কতগুলো বই বিজয়ে প্রকাশিত হয়। আমি তো এটা বাধ্য করেনি। এখন মোস্তাফা জব্বার মন্ত্রী হয়ে যদি অপরাধ করে থাকে, এটা হয়ে গেছে। আমি সরকারের নির্দেশ মেনে যদি এটা জনগণের কাছে পৌঁছে না দিই এবং আমরা কী দিচ্ছি, বিনামূল্যে দিচ্ছি। আমি উইন্ডোজের জন্য, ম্যাকের জন্য সফটওয়্যার (বিজয়) বিক্রি করছি। কিন্তু স্মার্টফোনের সফটওয়্যার তো বিক্রি করিনি।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘বিজয় মোবাইল থাকা মানে ব্যবহারকারীকে ফ্যাসিলিটেট করা। ব্যবহারকারীকে আরেকটা সফটওয়্যার ডাউনলোড করে বাংলা ব্যবহার করতে হবে না। ব্যবহারকারী তার মোবাইলে একটা সফটওয়্যার পাচ্ছেন। তিনি ব্যবহার করবেন, ফেলে দেবেন, নতুন ইনস্টল করবেন- কী করবেন সেটা সম্পূর্ণ গ্রাহকের স্বাধীনতা।’

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর