আপনি পড়ছেন

অ্যাসাইলাম আবেদন প্রত্যাখ্যাত হওয়া প্রায় ১০ হাজার বাংলাদেশি অভিবাসীকে ফেরত পাঠাতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য। দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশের ফাস্ট ট্র্যাক (দ্রুত) রিটার্ন চুক্তির আওতায় এই অভিবাসীদের ফেরত পাঠানো হচ্ছে। খবর দ্য টেলিগ্রাফের।

bangladesh uk১০ হাজার বাংলাদেশি অভিবাসীকে ফেরত পাঠাচ্ছে যুক্তরাজ্য

যুক্তরাজ্যের অভিবাসন কর্তৃপক্ষের তথ্যমতে, বাংলাদেশ থেকে ২০২৩ সালে প্রায় ১১ হাজার ব্যক্তি শিক্ষা ভিসা, ভ্রমণ ভিসা ও কর্মী ভিসায় যুক্তরাজ্যে আসেন। এরপর তারা স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য আশ্রয়ের আবেদন করেন। তবে তাদের আবেদনের ৯৫ শতাংশ খারিজ করে দেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাজ্য বলছে, বাংলাদেশি এসব নাগরিক কর্মী বা ভ্রমণ ভিসায় যুক্তরাজ্যে আসার পর শুধুমাত্র স্থায়ীভাবে বসবাসের উদ্দেশ্যে রাজনৈতিক আশ্রয় দাবি করেন। তবে অভিবাসন কর্তৃপক্ষের যাচাই-বাছাইয়ে মাত্র ৫ শতাংশ আবেদন টিকেছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আবেদন খারিজ হওয়া এসব বাংলাদেশি আশ্রয়প্রার্থীদের নতুন করা একটি চুক্তির আওতায় দেশে ফেরত পাঠানো হবে। অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসীদের ফেরত পাঠানো সহজ করতে এ সপ্তাহে লন্ডনে বাংলাদেশের সঙ্গে এ নতুন চুক্তি করেছে যুক্তরাজ্য কর্তৃপক্ষ।

লন্ডনে অনুষ্ঠিত স্বরাষ্ট্রবিষয়ক যুক্তরাজ্য-বাংলাদেশ প্রথম যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে এ চুক্তি হয়। বৈঠকে অবৈধ অভিবাসন মোকাবেলাসহ দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক বিষয়ে সহযোগিতা জোরদারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয় বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্য।

ব্রিটেনে অবৈধ অভিবাসন প্রতিরোধবিষয়ক মন্ত্রী মাইকেল টমলিনসন বলেন, অবৈধভাবে লোকজনের যুক্তরাজ্যে আসা ও থাকা ঠেকাতে এবং তাদের প্রত্যাহার ত্বরান্বিত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যুক্তরাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার হচ্ছে বাংলাদেশ। একটা চমৎকার বিষয় যে, এসব ইস্যুতে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদার করছে যুক্তরাজ্য।