আপনি পড়ছেন

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, বাঙালির প্রতিটি অর্জনই এসেছে আওয়ামী লীগের হাত ধরে। জন্ম থেকে আওয়ামী লীগের একেকটি পদক্ষেপে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সবসময় মানুষের সুখে-দুঃখে মানুষের পাশে ছিল আওয়ামী লীগ। কিন্তু বারবার এই দলকে আঘাত করা হয়েছে, নিশ্চিহ্নের চেষ্টা হয়েছে। যতবার আঘাত এসেছে ততবারই ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠেছে আওয়ামী লীগ। বঙ্গবন্ধুর সৈনিকরা কখনো পরাভব মানে না, মাথানত করে না। আগামীতেও করবে না।

hasina al75আওয়ামী লীগের ৭৫ বছর পূর্তিতে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় শেখ হাসিনা

আজ রবিবার বিকেলে রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী- প্লাটিনাম জয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

টানা চতুর্থবার ক্ষমতায় আসা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জনগণের শক্তি অপরিসীম। আওয়ামী লীগ জনগণের শক্তিতে বিশ্বাস করে। সংগঠন শক্তিশালী হলে আর জনসমর্থন থাকলে যতই ষড়যন্ত্র হোক না কেন, কেউ কিছু করতে পারবে না। আর যেকোনো সময় মৃত্যু আসতে পারে, কিন্তু আমি মৃত্যুকে ভয় করি না। যতক্ষণ শ্বাস আছে ততক্ষণ দেশের জনগণের ভাগ্যে পরিবর্তনে কাজ করে যাব।

আওয়ামী লীগকে আরও শক্তিশালী ও সুসংগঠিত করে গড়ে তোলার জন্য দলের নেতাকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়ে দলটির সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, আমার একটাই আবেদন থাকবে আমাদের সংগঠনের প্রতিটি নেতাকর্মীর কাছে, সংগঠনকে সুসংগঠিত করতে হবে। যেকোনো একজন রাজনীতিবিদের জীবনে সংগঠনটা হচ্ছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। যদি সংগঠন শক্তিশালী হয় আর দেশের গণমানুষের সমর্থন পাওয়া যায় যতই ষড়যন্ত্র হোক, সফল হওয়া যায়।

এর আগে বিকাল ৩টা ৩৬ মিনিটে সভামঞ্চে আসেন শেখ হাসিনা। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এ সময় জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে তাকে বরণ করে নেন। পরে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, জাতীয় সংগীত পরিবেশন, পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, জনগণের সেই আস্থা-বিশ্বাস অর্জন করতে পেরেছি বলেই বার বার জনগণ আমাদের ভোট দিয়েছে। বার বার ক্ষমতায় এসে, দীর্ঘ সময় বাংলাদেশের ইতিহাসে ২০০৯ থেকে এই ২০২৪ পর্যন্ত গণতান্ত্রিক ধারা অব্যহত আছে। আর গণতান্ত্রিক ধারা অব্যহত আছে বলেই আজকে আর্থ-সামাজিকভাবে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, বাংলাদেশের উন্নতি হচ্ছে। বাংলাদেশ আজকে বিশ্ব দরবারে রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। বিশ্বে আজকে মাথা উঁচু করে চলার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এই আস্থা-বিশ্বাস ধরে রেখেই আমাদের সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে।

স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, ২১০০ সাল পর্যন্ত আমরা ডেল্টা প্ল্যান রূপকল্প ঘোষণা করেছি। অনেক বয়স হয়েছে, ততদিন হয়তো বেঁচে থাকবো না। কিন্তু আজকে যারা নবীন, যারা আমার স্মার্ট বাংলাদেশের মূল সৈনিক হবে। আমরা স্মার্ট জনগোষ্ঠী গড়ে তুলবো, স্মার্ট সরকার, স্মার্ট অর্থনীতি, স্মার্ট সোসাইটি গড়ে তুলে, এই বাংলাদেশ বিশ্বে মাথা উঁচু করে এগিয়ে যাবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর প্লাটিনাম জুবলীতে এটাই আমাদের প্রতিজ্ঞা।

১৯৪৯ সালের ২৩ জুন প্রতিষ্ঠা পাওয়া আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা পায় বাংলাদেশ। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া এ দলে এখন নেতৃত্ব দিচ্ছেন তার মেয়ে শেখ হাসিনা। টানা চার মেয়াদে সরকার পরিচালনা করছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

দলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মওলানা ভাসানী ও সাধারণ সম্পাদক শামসুল হককে স্মরণ করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, আওয়ামী লীগ ছাড়া যারাই ক্ষমতায় এসেছে তারা সন্ত্রাসবাদ ও দুর্নীতি করেছে। জনগণের শক্তি ভুলে গিয়েছিল তারা। কিন্তু আওয়ামী লীগ জনগণের শক্তিতে বিশ্বাসী।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সমাবেশ মঞ্চে দলের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে ছিলেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, শাজাহান খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, কামরুল ইসলাম, এ এইচ এম খায়রুজামান লিটন, সিমিন হোসেন রিমি ও সৈয়দা জেবুন্নেছা হক।

সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের ছাড়াও ওয়াকার্স পাটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার, তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীসহ ১৪ দলের নেতারা অতিথি গ্যালারিতে উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী উপলক্ষে সূর্যোদয়ের সময় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও দেশব্যাপী দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল সাতটায় ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকাল সাড়ে ১০টায় গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানায় আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের প্রতিনিধিদল।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর

Stay up-to-date with the latest news from Bangladesh. Our comprehensive coverage includes politics, business, sports, and culture. Get breaking news, analysis, and commentary on the issues that matter most to Bangladeshis and the international community.

Bangladesh is a country located in South Asia and is home to a diverse population of over 160 million people. It has a rich cultural heritage and a rapidly growing economy. News from Bangladesh covers a wide range of topics, including politics, economics, social issues, culture, and more. The country has made significant progress in recent years in areas such as poverty reduction, education, and healthcare. However, it still faces challenges such as corruption and environmental degradation. Bangladeshi news sources cover both local and international news to keep the public informed about the latest developments and events.