আপনি পড়ছেন

ভারত বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক দেশ। তারপরও কেবল ধর্ম বিশ্বাস নিয়ে করা লড়াইয়ে প্রতি বছর মারা যান বহু মানুষ। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে সংখ্যা গরিষ্ঠ হিন্দুদের হাতে নির্যাতিত হন মুসলমানরা। পরিস্থিতি যখন এ রকম, তখনই যুগান্তকারী এক রায় দিলেন ভারতের হাইকোর্ট।

indian high court of kerala

সম্প্রতি ভারতের এক হিন্দু তরুণী স্বপ্রণোদিত হয়ে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম গ্রহণ করেন। কিন্তু তার এ সিদ্ধান্তে নাখোশ ছিলো পরিবার। পরে ওই তরুণী পুলিশের দ্বারস্থ হন। পুলিশ তাকে নারীদের সেইফ হোমে পাঠিয়ে দেয়।

পরে তরুণীর বাবা-মা তাকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেন। এ সময় আদালত তার পরিবারকে বলে দেন যে, ওই তরুণীকে তার নতুন ধর্ম ইসলাম পালনে কোনো রকম বাধা দেয়া যাবে না। বরং তাকে দিতে হবে স্বাধীনতা। যাতে তিনি নিজের মতো করে ধর্ম পালন করতে পারেন।

জানা গেছে, আথিয়া আয়েশা নাম নেয়া তরুণী ইসলাম ধর্ম বিষয়ে উচ্চ শিক্ষা নিতে চান। আদালত তার পরিবারকে বলে দিয়েছেন, যাতে তিনি তার ইচ্ছা পূরণে বাধাহীনভাবে এগোতে পারেন।

এ দিকে, আয়েশার পরিবার আদালতের রায় মেনে নিয়েছে। তারা একই সঙ্গে জানিয়েছে যে, আয়েশা যেভাবে তার জীবন যাপন করতে চান, ঠিক সেভাবে পারবেন। তাকে পরিবার থেকে কোনো বাধা দেয়া হবে না বলেও আদালেতর কাছে নিশ্চয়তা দিয়েছেন তারা।

জানা গেছে, গত জুলাই মাসের শেষ দিকে বাড়িতে একটি চিঠি লিখে চলে যান আয়েশা। এ সময় খবর প্রচার হয় যে, আইএসে যোগ দেয়ার জন্য বাড়ি ছেড়েছেন তিনি। কিন্তু পরে আয়েশা আদালতে বলেছেন, আইএস সম্পর্কে তার তেমন কোনো ধারণাই নেই। কেবল ইসলামে শান্তি খুঁজে পেয়েছেন বলেই ধর্ম ত্যাগ করেছেন বলে জোর দিয়ে বলেন তিনি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর