আপনি পড়ছেন

প্রথম দেখাতে মনে হয়, মাঠের পাশে দাঁড়িয়ে আছে বোলপুর-সিউড়ি রুটের আস্ত একটা বাস। এ জায়গায় কিভাবে গাড়ি এলো, তা ভাবতে ভাবতে এগিয়ে এসে বাসে উঠতে চাইলে তখন খেয়াল হয় আসলে এটি বাস নয়, বাড়ি। বাসের আদলে বসবাসের জায়গা। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলার পাড়ুই থানার ধানাইমোড় গ্রামের মৃৎশিল্পী উদয় দাস এ বাসবাড়িটি তৈরি করেছেন।

beautyful busপরিবারের সঙ্গে নিজের বাড়ির সামনে উদয়

উদয় বলেন, সেই ছোটবেলায় যখন প্রথম বার বাসে চড়েছিলাম, সেই সময়েই এই যানটিকে ভালবেসে ফেলি। দীর্ঘদিনের ইচ্ছা ছিল, এমন একটা বাড়ি বানাব। সেই ইচ্ছাপূরণ হয়েছে।

ছোটবেলা থেকে রাজমিস্ত্রির জোগালীর কাজ করতেন উদয়। পরে নিজেই রাজমিস্ত্রি হয়ে ওঠেন তিনি। উদয়ের পরিবার মৃৎশিল্পের কাজের সঙ্গেও যুক্ত। বংশগতভাবে সেই কাজও শিখে ফেলেছিলেন উদয়। তার সেই শিল্পীসত্ত্বার পরিচয় পাওয়া যায় এই বাস বাড়ি নির্মাণেই।

bus houseবাসের মতো বাসস্থান

বরাবর মাটির বাড়িতেই বাস করলেও উদয়ের স্বপ্ন ছিল বাস-বাড়ির। স্বপ্নের সঙ্গে ইচ্ছার মিশেলে উদয় তৈরি করেন তার এই ভিন্ন চিন্তার ভিন্ন আদলের বাড়ি। গত বছরের লকডাউনের সময় কাজ শুরু করেন তিনি। কিন্তু দামের আধিক্যের কারণে এক পর্যায়ে বাড়ি নির্মাণের কাজ বন্ধ রাখতে বাধ্য হন উদয়। এ বছরে এসে ঋণ নিয়ে শখের বাড়ি নির্মাণের কাজ শেষ করেছেন।

উদয়ের স্ত্রী চন্দনা বলেন, উদয়ের বাস-বাড়ি তৈরির কথা শুনে আমি প্রথমে আঁতকে উঠেছিলাম। পরে আমরাও বাড়ির কাজে হাত লাগিয়েছি। বাড়িটি তৈরি করতে প্রায় তিন লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে।

বাস-বাড়ি নির্মাণ শেষ করেছেন উদয়। কিন্তু একটা শুভদিনের অপেক্ষায় আছেন তিনি। শুভদিনটা পেলেই ঢুকে যাবেন স্বপ্নের বাড়িতে। তবে সেখানে ইতোমধ্যেই হানা দিয়ে আছে সেলফিপ্রেমীরা। দিন রাত তারা নিজেকে সামনে রেখে তুলে যাচ্ছেন সেলফি। মানে এরই মধ্যেই স্থানীয়দের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে এ বাস-বাড়ি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর