আপনি পড়ছেন

পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কত্ব পেয়েছেন শহিদ আফ্রিদি। ২০১৬ সালে ভারতে অনুষ্ঠেয় ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি পর্যন্ত দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তাকে। মোহাম্মদ হাফিজের স্থলাভিষিক্ত হলেন তিনি। ২০১৪ সালের ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টিতে ব্যর্থ হওয়ায় অধিনায়কত্ব ছাড়েন হাফিজ।

অধিনায়ক নির্বাচনের জন্য পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের ভাবনায় একাধিক বিকল্প ছিলো। তবে মূল লড়াইটা হয়েছে একজন তরুণ ও একজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের মধ্যে। শেষ পর্যন্ত তরুণ কাউকে বড় দায়িত্ব দেয়ার জন্য উপযুক্ত মনে করেনি পিসিবি। ফলে শেষ পর্যন্ত দায়িত্ব দিতে হয় শহিদ আফ্রিদির মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকেই।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এবং পিসিবি এ সিদ্ধান্তে একমত হয়েছে। চূড়ান্ত ঘোষণা দিয়ে বিষয়টি সুনিশ্চিত করেছেন পিসিবি চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান।

তিনি বলেন, 'অতীতে যা হওয়ার তা হয়ে গেছে। আমরা এখন নতুন একটি শুরুর দিকে তাকিয়ে আছি।' আফ্রিদি নিজেও এই সুযোগ কাজে লাগাতে চান। ক্রিকইনফোকে তিনি বলেন, 'আমি খেলোয়াড়দের মধ্যে ভয়ডরহীন মানসিকতা তৈরির চেষ্টা করবো। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দুর্বল চিত্তের খেলোয়াড়দের জন্য নয়।'

এর আগে ২০০৯ সালের আগস্ট থেকে ২০১১ সালের এপ্রিল পর্যন্ত ১৯টি টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দিয়েছেন আফ্রিদি। তার নেতৃত্বে ১১টি ম্যাচে হেরেছে পাকিস্তান, বিপরীতে জিতেছে আটটি ম্যাচে।