আপনি পড়ছেন

সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ‘ডেথ অন দ্য নাইল’ নিষিদ্ধ করেছে লেবানন। ছবির মুখ্য চরিত্রে একজন ইসরায়েলি অভিনেত্রী থাকায় দেশটি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর আগে এই সপ্তাহের শুরুতে একই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কুয়েত।

death on the nile gal gadotডেথ অন দ্য নাইল ছবির একটি দৃশ্যে গ্যাল গ্যাদত

১৯৩৭ সালে প্রকাশিত সুপরিচিত আগাথা ক্রিস্টি উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত এই মুভিতে একজন ধনী নবদম্পতির গল্প দেখানো হয়েছে, যারা নীল নদে বিলাসবহুল ক্রুজে ভ্রমণ করছিলেন। সেই সময় ক্রুজে একজন যাত্রী নিহত হয় এবং ইন্সপেক্টর হারকিউলি এর তদন্ত শুরু করে।

লেবানন ও কুয়েতের দৃষ্টিতে ছবির গল্পে কোনো সমস্যা নেই। সমস্যা হচ্ছে গ্যাল গ্যাদতকে নিয়ে, যিনি নববধূর চরিত্রে অন্যতম প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। মডেলিং ও অভিনয়ে আসার আগে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীতে দুই বছর দায়িত্ব পালন করেছেন গ্যাল গ্যাদত।

death on the nile movieলেবানন ও কুয়েতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে ডেথ অন দ্য নাইলের প্রদর্শন

এর পাশাপাশি গাজা উপত্যকায় ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের সামরিক অভিযান এবং পশ্চিম তীরে বর্ণবাদ নীতির গর্বিত সমর্থক হওয়ার কারণে গ্যাদত আরব বিশ্বে দীর্ঘদিন ধরে বিতর্কিত একজন ব্যক্তিত্ব হিসেবে পরিচিত। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তিনি খোলাখুলিভাবেই ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর প্রতি তার সমর্থনের কথা প্রকাশ করেন।

লেবানন এর আগে ২০২০ সালে গ্যাল গ্যাদত অভিনীত চলচ্চিত্র ‘ওয়ান্ডার ওম্যান ১৯৮৪’ এবং ২০১৭ সালে ‘ওন্ডার ওম্যান’ নিষিদ্ধ করেছিল। আরব বিশ্বের বিভিন্ন দেশেও চলচ্চিত্র দুটি নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর