আপনি পড়ছেন

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বী জায়েদ খান ও নিপুণ আক্তারের মধ্যে জয় নিয়ে রীতিমতো লড়াই চলছে। তাদের বিজয়ী ঘোষণা নিয়ে নানা নাটকীয়তা দেখা গেছে, বিষয়টি গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত। এ নিয়ে সৃষ্ট সমস্যার এখনো সুরাহা হয়নি।

nipun picনিপুণ আাক্তার, ফাইল ছবি

এরমধ্যেই আজ মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর বনানী থানায় সাধারণ ডায়েরি, জিডি করেছেন নিপুণ। এদিন বিকালে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন, এফডিসিতে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি। জিডির ঘটনাটি গতকাল ১৪ ফেব্রুয়ারির বলে জানানো হয়েছে।

সেদিন ফুল কিনতে বাসা থেকে বের হওয়ার কথা জানিয়ে নিপুণ বলেন, পথিমধ্যে আমার গাড়ির সামনে এসে দাঁড়ায় কয়েকজন, তারা সাহায্যের কথা বলেন। এ সময় কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমার দায়ের করা মামলা তুলে নিতে বলেন তারা। ওই ঘটনায় বনানী থানায় জিডি করার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, শিল্পী সমিতির বৈধ সাধারণ সম্পাদক আমি। আদালতের আদেশের ফলে যেখানে আছি, সেখানেই থাকব।

zayed khanজায়েদ খান, ফাইল ছবি

উল্লেখ্য, গত ২৮ জানুয়ারি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়, যাতে সভাপতি পদে জয়ী হয়েছেন ইলিয়াস কাঞ্চন। তার কাছে হেরেছেন সাবেক সভাপতি মিশা সওদাগর। তবে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রথমে জায়েদকে বিজয়ী ঘোষণা করে নির্বাচনী কর্তৃপক্ষ।

পরবর্তীতে অনিয়মের অভিযোগে জায়েদের প্রার্থিতা বাতিল করে নিপুণকে জয়ী ঘোষণা করে সংশ্লিষ্ট আপিল বোর্ড। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের পর বিষয়টি গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত। নির্বাচনের দিনই সংবাদ মাধ্যমের কাছে নিপুণ অভিযোগ করেন যে, জায়েদ খান টাকা দিয়ে ভোট কিনছেন। সে অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন জায়েদ খান।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করার আদেশ দেন হাইকোর্ট বেঞ্চ। একই সঙ্গে প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়। পরদিন নিপুণের আইনজীবী রোকনউদ্দিন মাহমুদ আপিল আবেদনটি দাখিল করেন।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর