advertisement
আপনি দেখছেন

নতুন ফোন সেট উদ্বোধনের সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে চীনা ইলেক্ট্রনিক্স কোম্পানি শাওমি অবশেষে বাজারে নিয়ে এলো ১০৮ মেগাপিক্সেল ও অনন্য উচ্চ-ক্ষমতার শাওমি সিসি৯ প্রো।

mi cc9 pro৬টি ক্যামেরা নিয়ে বাজারে এলো শাওমি সিসি৯ প্রো

শাওমি’র নতুন এ ফোনটিতে রয়েছে ৬টি ক্যামেরা, যার মধ্যে সামনে একটি ও পেছনে রয়েছে ৫টি ক্যামেরা। যার প্রতিটিই অন্যান্য স্মার্টফোনের ক্যামেরা থেকে আলাদা। আপনার যদি স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে আগ্রহী থাকে তবে আঙ্গুলের ইশারায় ভবিষ্যত প্রযুক্তিকে আপনার হাতে এনে দিবে সিসি৯ প্রো।

সিসি৯ প্রোর পেছনের পাঁচটি ক্যামেরার একটিতে থাকবে ১০৮ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড লেন্স, যা এক্সট্রা কোয়াড বায়ার সেন্সরের তৈরি। ১০৮ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেন্সরটি ক্যামেরাটিকে চার অ্যাক্সিস অপটিকাল ইমেজসহ ২৭ মেগা পিক্সেলের ছবি ধারণ করতে সক্ষমতা এনে দিয়েছে।

সেই সাথে, এ স্মার্টফোনটিতে থাকা ২০ মেগাপিক্সেলের পেছনের ক্যামেরার মাধ্যমে আল্ট্রা-ওয়াইড অ্যাঙ্গেলে ছবি ধারণ করা যাবে। যারা ওয়াইল্ড-লাইফ ফটোগ্রাফি ও ন্যাচারাল ফটোগ্রাফিকে ভালোবাসেন, তাদের জন্য এটি একটি আশীর্বাদ হবে। যখন আপনার ক্লোজ-আপ সট নেয়ার প্রয়োজন হবে তখন সিসি প্রো৯ এ থাকা ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ক্যামেরা আপনাকে ১.৫ থেকে ১০ সেন্টিমিটার দূরত্বের ফোকাস ঠিক রাখতে সহায়তা করবে।

১০৮ মেগাপিক্সেলের পাঁচগুণ জুমের ৫ মেগাপিক্সেল সেন্সরটিতে ১০ থেকে ৫০ গুণ পর্যন্ত হাইব্রিড জুম সমর্থন করে। যার মাধ্যমে অপটিক্যাল ও ডিজিটাল জুম মিলিয়ে ছবির বিষয়বস্তু ৫০ গুণ পর্যন্ত বড় করে দেখাতে পারে। এর ৩২ মেগাপিক্সেলের সামনের ক্যামেরা আপনাকে সেলফি, গ্রুপফি ও ভিডিও রেকর্ডিং করার বড় সুযোগ দিবে।

শাওমি সিসি৯ প্রো’র আরেক বড় সুবিধা হলো ‘নাইট মুড’ অপশন। যখন আপনার বাস্তবিক অর্থেই নান্দনিক ছবি লাগবে তখন নাইট মুড অপশনটি চালু করতে ভুলবেন না।

শাওমি সিসি প্রো’কে দর্শনীয় করে তুলতে এর ৬.৪৭ ইঞ্চির ডিসপ্লেটিকে তার বাঁকা এমোলেডের মাধ্যমে মোড়ানো হয়েছে যার পেছনে রয়েছে খাঁজকাটা ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

সিসি প্রো৯ সংস্করণটিতে থাকবে ৮ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ। এর ৫,২৬০ এমএইচ শক্তির লি-পো ব্যাটারি আপনাকে ৬৫ মিনিটের মধ্যেই ৩০ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিংসহ দীর্ঘ সময় ধরে ফোনটি চালু রাখার নিশ্চয়তা দিবে। যেখানে মোবাইল গেমারদের জন্য কোয়াল্কম সিপিইউসহ স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি চিপ ব্যবহার করা হয়েছে।

ফোনের স্পিড নিয়ে আপনাকে আর ভাবতে হবে না, কেননা সিসি৯ প্রো’তে অ্যানড্রয়েড ৯ পাইয়ের সাথে এমআইইউআই ১১ স্কিন সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয়েছে। এর আইআর ব্ল্যাস্টার, ৩.৫ অডিও হেডফোন জ্যাক, ব্রুটুথ ৫.০ সংযোগ এবং এফএম রেডিও আপনাকে মিডিয়া ফাইল চালাতে দিবে দারুন অনুভূতি।

তবে, এ ফোনটিতে পানি প্রতিরোধের নিজস্ব কোনো ব্যবস্থা রাখা হয়নি এবং আলাদা কোনো মাইক্রো-এসডি স্লট রাখা হয়নি যা বাজারের অন্যান্য কোম্পানিগুলো তাদের ফোনে রেখে থাকেন।

এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, চীনা কোম্পানি শাওমির আরেকটি দুর্দান্ত আবিষ্কার হলো সিসি৯ প্রো। তাই আর দেরি কেন, এখনই আপনার পছন্দের ডিভাইস হিসেবে ফোনটিকে সঙ্গী করে নিতেই পারেন। ইউএনবি।

sheikh mujib 2020