advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 10 মিনিট আগে

ফোরজির নীতিমালা অনুযায়ী মোবাইল অপারেটরগুলোর গতি কমপক্ষে ৭ এমবিপিএস হওয়ার কথা কিন্তু চতুর্থ প্রজন্মের (ফোরজি) ইন্টারনেট সেবায় নির্ধারিত মাত্রার গতি নেই দেশের ৫ টি মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরের। চার বিভাগে জরিপ চালিয়ে এমনটাই তথ্যই জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

4g internet

বিটিআরসির এমন প্রতিবেদনের পর অপারেটরগুলোর দাবি, বর্তমান অবকাঠামোতে এর চেয়ে বেশি গতি দেওয়া কঠিন। দেশের চার বিভাগের মোট ১৮টি জেলায় মোবাইল ফোন অপারেটরদের ইন্টারনেট সেবা পরিমাপ করতেই নিরীক্ষাটি চালায় বিটিআরসি।

ঢাকা জেলায় চালানো পরীক্ষায় দেখা যায়, রাজধানীকে কেউই ফোরজি’র জন্য ঘোষিত ডাউনলোডের গতি সাত এমবিপিএস দিতে পারেনি। এরপর খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী এবং রংপুর বিভাগের বিভিন্ন এলাকাতেও সন্তোষজনক ফলাফল পাওয়া যায়নি।

নিরীক্ষার সময় ড্রাইভ টেস্ট পরিচালনায় দেখা গেছে, মোবাইল ফোনের অপারেটররা সবচেয়ে বাজে সেবা দিচ্ছে বরিশালে। বরিশালে ফোরজি ইন্টারনেটের গতি ঘোষিত নির্ধারিত গতির চেয়ে অনেক কম।

নীতিমালা অনুযায়ী, মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর ফোরজি’র জন্যে সর্বনিম্ন সাত এমবিপিএস গতিতে সেবা দেয়ার কথা। কিন্তু পরীক্ষায় দেখা গেছে, বাংলালিংক ফোরজিতে তিন দশমিক ৫৬ এমবিপিএস, গ্রামীণফোন ৫ দশমিক ১ এমবিপিএস এবং রবি দিচ্ছে ৪ দশমিক ৮৯ এমবিপিএস।

বিটিআরসির এই পরীক্ষায় রাষ্ট্রায়াত্ত্ব অপারেটর টেলিটক ছিল না। তবে থ্রিজি’র নির্ধারিত দুই এমবিপিএস ডাউনলোড স্পিডই টেলিটক দিতে পারেনি। এক্ষেত্রে অন্যরা সেটি নিশ্চিত করেছে।

sheikh mujib 2020