advertisement
আপনি দেখছেন

চীনা প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী রেন ঝেংফেই এক বছরেরও বেশি সময় পর সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় জানিয়েছেন, নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সাথে কথা বলতে চান।

huawei ceo wants talk to biden

রেন জানিয়েছেন, তিনি বিশ্বাস করেন নতুন মার্কিন প্রশাসন সবার জন্য উন্মুক্ত একটি পলিসি গ্রহণ করবে এবং এতে করে হুয়াওয়ে এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার ব্যবসা-সম্ভাবনা আবার শুরু হবে।

এএফপিকে তিনি বলেন, “বাইডেনের কল পেলে আমি স্বাগতম জানাবো। আমি তার সাথে সাধারণ কিছু বিষয়ে কথা বলবো। যুক্তরাষ্ট্র ও চীন— উভয়েরই তাদের অর্থনীতি উন্নত করা প্রয়োজন; এটি আমাদের সমাজ ও অর্থনৈতিক ভারসাম্যের জন্য জরুরি।”

তিনি আরো বলেন, “যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠান যদি চীনা ক্রেতাদের কাছে বা চীনা প্রতিষ্ঠানগুলো মার্কিন ক্রেতাদের কাছে পণ্য বিক্রি করতে পারে, তাহলে তা সবার জন্যই উপকারী। হুয়াওয়ে যদি বেশি উৎপাদন করতে পারে, তাহলে যুক্তরাষ্ট্র বেশি বিক্রি করতে পারবে। এটি সবার জন্যই পাওয়ার সুযোগ।”

জাতীয় নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ— এই আখ্যা দিয়ে হুয়াওয়েকে যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব কমার্সের কালো তালিকায় রাখা হয়েছে। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে আপাতত যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রতিষ্ঠানের সাথে হুয়াওয়ে ব্যবসা করতে পারে না।

অনেক ক্ষতির পাশাপাশি হুয়াওয়ে এখন গুগলের অ্যান্ড্রয়েডও ব্যবহার করতে পারছে না। যার ফলে তাদের স্মার্টফোন ব্যবসা হঠাৎ করেই ধসে গেছে। অথচ এক সময় অ্যাপল, স্যামসাংয়ের পর হুয়াওয়েই ছিলো স্মার্টফোনের বাজারে সবচেয়ে বড় নাম।

এই ধাক্কায় সহকারি প্রতিষ্ঠান হোনোর বিক্রি করে দিয়েছে হুয়াওয়ে, যাতে করে হোনোর ব্র্যান্ডে স্মার্টফোন ব্যবসা কোনো মতে টিকিয়ে রাখা সম্ভব হয়নি। এর মধ্যে গুজব ছড়িয়ে পড়ে যে হুয়াওয়ে তাদের স্মার্টফোন ব্যবসা কোনো মার্কিন প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি করে দেবে। কিন্তু রেন বলেছেন, এরকম কিছুর চিন্তা তারা করছেনই না।

sheikh mujib 2020