advertisement
আপনি দেখছেন

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসার ১৯৬৯ সালের প্রথম চন্দ্র অভিযান কার না জানা! সে সময় প্রথমবারের মতো গ্রহটিতে অবতরণ করা তিন নভোচারীর সবাই ছিলেন পুরুষ। এবার চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে প্রথম কোনো নারীকে পাঠাতে চাইছে সংস্থাটি।

jeff bezos elon musk nasaজেফ বেজোস ও ইলন মাস্ক, ফাইল ছবি

এ লক্ষ্যে মনুষ্যবাহী মহাকাশযান পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে নাসা, যা নিয়ে মুখোমুখি দাঁড়িয়েছেন মার্কিন দুই ধনকুবের। তারা হলেন- মহাকাশ সংস্থা ব্লু অরিজিনের জেফ বেজোস ও স্পেসএক্সের ইলন মাস্ক। মহাকাশযান নির্মাণকে কেন্দ্র করে বিশ্বের শীর্ষ এই দুই ধনীর দ্বন্দ্ব গাড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত।

দুজন নভোচারী পাঠাতে ওরিয়ন মহাকাশযান নির্মাণে স্পেসএক্সের সঙ্গে গত এপ্রিলে ২৯০ কোটি ডলারের চুক্তি করেছে নাসা। এতে মৌলিক সমস্যা থাকার অভিযোগ এনে ১৩ আগস্ট সংস্থাটির বিরুদ্ধে মার্কিন ফেডারেল মামলা করেছে ব্লু অরিজিন। এর ফলে গত বৃহস্পতিবার চুক্তিটি সাময়িকভাবে স্থগিত করতে বাধ্য হয় নাসা।

orion spacecraft constructionওরিয়ন মহাকাশযান নির্মাণ, ফাইল ছবি

রয়টার্স জানায়, শুরুতে দুটি সংস্থার সঙ্গে চুক্তিতে করতে চাইলেও তহবিল ঘাটতির কারণে একটিকে বেছে নেয় নাসা। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে আদালতে সংস্থাটির বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দেয় অপরটি। এখন নাসার একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে আগামী ১৪ অক্টোবর আদালতে শুনানি হবে।

স্পেসএক্স আদালতের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করছে জানিয়ে নাসা বলছে, তাদের পক্ষে রয়েছে মার্কিন নিয়ন্ত্রক সংস্থা গভর্নমেন্ট অ্যাকাউন্টেবিলিটি অফিস (জিএও)। অন্যদিকে, স্পেসএক্সের অফারে নাসা যাতে সায় দেয়, সেজন্য বিকল্প হিসেবে ২০০ কোটি ডলার পর্যন্ত খরচ বহন করার প্রস্তাব দিয়ে রেখেছে ব্লু অরিজিন।