advertisement
আপনি দেখছেন

বিশ্বজুড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গত সোমবার বড় ধরনের বিভ্রাট ঘটে যায়। ফেসবুক এবং এর মালিকানাধীন প্লাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টগ্রাম, মেসেঞ্জারের সেবা সেদিন স্থবির হয়ে পড়েছিল। আর এ সুযোগে বড় ধরনের দান মেরেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের আরেকটি পরিষেবা টেলিগ্রাম। সোমবারের ওই ছয় ঘণ্টায় তারা নতুন ব্যবহারকারী পেয়েছে ৭কোটিরও বেশি। হোয়াটসঅ্যাপের মতো তাৎক্ষণিক বার্তা পরিষেবা সরবরাহ করে এই টেলিগ্রাম।

telegramহোয়াটসঅ্যাপের মতো তাৎক্ষণিক বার্তা পরিষেবা সবরবাহ করে টেলিগ্রাম

আরব নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, টেলিগ্রামের প্রতিষ্ঠাতা পাভেল দুরভ তার টেলিগ্রাম চ্যানেলে বিষয়টি নিয়ে বেশ খানিকটা মজাই করেছেন। তিনি লিখেছেন, অন্য প্ল্যাটফর্ম থেকে আসা ৭ কোটির বেশি ‘শরণার্থী’কে আমরা স্বাগত জানাই।টেলিগ্রাম এর আগে টুইটারে জানিয়েছিল, ফেসবুকের এ সমস্যার মধ্যে কিছু অঞ্চলে মেসেঞ্জারের ব্যবহারকারীরা সমস্যায় পড়লেও বেশিরভাগ ব্যবহারকারীর ক্ষেত্রে টেলিগ্রাম পরিষেবাটি কাজ করবে।

গত সোমবার ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা ছয় ঘণ্টার জন্য ফেসবুক পরিষেবা অ্যাক্সেস করতে বাধাগ্রস্ত হয়। ত্রুটিপূর্ণ কনফিগারেশন পরিবর্তনের ফলে সৃষ্ট এ বিভ্রাটে ফেসবুক ও সহযোগী পরিষেবাগুলোর ৩৫০ কোটি ব্যবহারকারী সমস্যায় পড়ে। তবে ফেসবুক দাবি করছে, এ সমস্যার কারণে ব্যবহারকারীদের তথ্যের কোনো সমস্যা হয়েছে বলে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

whatsapp and telegramএকদিনে সাত কোটির বেশি নতুন ইউজার পেয়েছে টেলিগ্রাম

ফেসবুকের ভাইস প্রেসিডেন্ট সন্তোষ জনার্দন সোমবার এক বিবৃতিতে বলেন, অনাকাঙ্ক্ষিত এ ক্ষতির ফলে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের কাছে আমরা ক্ষমাপ্রার্থী। সোমবার কী ঘটেছে সে সম্পর্কে ভালোভাবে বুঝতে আমরা কাজ করছি, যাতে এ অবকাঠামোটিকে আরো স্থিতিস্থাপক করে তোলা যায়।

দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল অনুসারে, সোমবারের ওই সমস্যাটি ফেসবুকের অভ্যন্তরীণ যোগাযোগের সরঞ্জামগুলোতেও নানা ধরনের ব্যাঘাত সৃষ্টি করেছে। ক্যালেন্ডার অ্যাপয়েন্টমেন্ট, ভয়েস কল ও কিছু কাজের অ্যাপ ছিল এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য।

ইন্টারনেটজুড়ে এ ধরনের বিভ্রাট পর্যবেক্ষণকারী সাইট ডাউনডিটেক্টর জানায়, সোমবারের ফেসবুক পরিষেবা বিভ্রাটটি ছিল ইতিহাসে এ ধরনের সমস্যার মধ্যে সবচেয়ে বড়।